দুর্যোগের সময় বাসায় নামাজেই জামাতের সওয়াব

নিজস্ব প্রতিবেদক

এডুকেশন বাংলা

প্রকাশিত : ১০:২৬ এএম, ৩০ মার্চ ২০২০ সোমবার

মহামারি বা দুর্যোগের সময় মসজিদের পরিবর্তে বাসায় অবস্থান করে নামাজ আদায় করলেও জামাতে নামাজ আদায় করার সওয়াব পাওয়া যাবে বলে মন্তব্য করেছেন দেশের বিশিষ্ট দুই আলেম। ইসলামের এ দৃষ্টিভঙ্গি অনুযায়ী করোনাভাইরাস সংক্রমণের আতঙ্কময় এ সময়ে মসজিদে ভিড় না করে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা অনুসারে বাসায় অবস্থান করে নামাজ আদায় করার আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা।

এ বিষয়ে ওলামা মাশায়েখ ঐক্যপরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা আব্দুল হালিম সিরাজী বলেন, ‘রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালনকালে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা জামাতে নামাজ পড়তে পারেন না। তবে আলাদাভাবে নামাজ পড়লেও জামাতের সওয়াব তিনি পেয়ে যাবেন। হাদিসে আছে, শীত বা অন্য দুর্যোগের সময় মসজিদে না আসতে পারলে বাসায় নামাজের ব্যাপারে বলেছেন রাসুল (সা.)। সে অনুযায়ী বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে মসজিদের পরিবর্তে বাসায় নামাজ পড়ার সুযোগ আছে।’

একই বিষয়ে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মিজানুর রহমান বলেন, ‘জামাতে হোক আর আলাদাভাবে নামাজ আদায় করা হোক, সওয়াব দেওয়ার দায়িত্ব মহান আল্লাহর। বর্তমান পরিস্থিতিতে মসজিদে না এসে বাসায় নামাজ পড়লে আল্লাহ অবশ্যই জামাতের সওয়াব দিতে পারেন।’

এদিকে গত শুক্রবার জুমার নামাজের আগে গত বুধ ও বৃহস্পতিবার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মসজিদে সীমিতসংখ্যক মুসল্লির উপস্থিতিতে জামাত আদায় করার আহ্বান জানানো হয়। অসুস্থ, বিশেষ করে হাঁচি-কাশি, সর্দি জ্বর আক্রান্ত ব্যক্তি, অতি বয়স্ক ও বিদেশফেরতদের মসজিদে যাওয়া থেকে বিরত থাকা, অন্যদেরও ব্যক্তিগত সুরক্ষার ব্যবস্থা নিশ্চিত করে মসজিদে শুধু ফরজ নামাজের জামাতে অংশ নিতে আহ্বান জানানো হয়। এরপর শুক্রবার সকালে অনেক মসজিদ থেকেও এই আহ্বান জানিয়ে মুসল্লিদের সতর্ক করা হয়। দেশের শীর্ষ আলেমদের মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন এই আহ্বান জানায়। তবে এত সব কিছুর পরও বেশির ভাগ মুসল্লি এসব নির্দেশনা মানছেন না।






এডুকেশন বাংলা/এজেড