যে কারণে অদ্ভুত পোশাকে শিক্ষিকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক

এডুকেশন বাংলা

প্রকাশিত : ১০:০৬ এএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ বুধবার | আপডেট: ১০:০৭ এএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ বুধবার

স্পেনের এক স্কুল শিক্ষিকা বায়োলজি ক্লাসে হাজির হন এক অদ্ভুত পোশাক পরে। তার গোটা পোশাকজুড়ে মানুষের শারীরবৃত্তীয় অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলো আঁকা রয়েছে। ‘অ্যানাটমি বডিস্যুট`টির সাহায্যে শিক্ষার্থীদের সামনে শরীরবিদ্যাকে আরো মজাদার করে তোলার জন্য এমন কাণ্ড করেন তিনি। তার মতে, এতে সবাই আরো সহজে শারীরবৃত্তীয় স্থানগুলো সম্পর্কে শিখে নিতে পারবে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, ওই শিক্ষিকার নাম ভেরোনিকা ডিউক। ১৫ বছর ধরে শিক্ষকতার কাজ করছেন তি‌নি। এখনো তিনি তৃতীয় গ্রেডে নানা বিষয় পড়ান। বিজ্ঞান, ইংরেজি, কলা, সমাজবিদ্যা ও স্প্যানিশ। ৪৩ বছরের শিক্ষিকা একদিন ইন্টারনেট ঘাঁটতে ঘাঁটতে আচমকাই খোঁজ পান এমন এক পোশাকের। ‘অ্যানাটমি বডিস্যুট`টি কিনতে আর দেরি করেননি তিনি।

তিনি জানান, শরীরের অভ্যন্তরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলোর অবস্থান বোঝা যে ছোটদের পক্ষে বেশ কঠিন সে কথা তার মাথায় ছিল। তাই এই পোশাক পরে তিনি চেষ্টা করেন বিষয়টিকে সহজবোধ্য করে তুলতে।

ভেরোনিকার স্বামীও তার সঙ্গে ক্লাসে গিয়েছিলেন। তিনি তার স্ত্রীর ওই পোশাক পরে পাঠদানের ছবি তোলেন। পরে টুইটারে তা পোস্টও করেন। এরপরই মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় তার পোস্ট। ভেরোনিকার এমন আশ্চর্য কাণ্ড এই প্রথম প্রয়োগ করলেন তা নয়। এর আগেও ইতিহাস পড়ানোর সময় ছদ্মবেশ ধারণ করেন। আবার ব্যাকরণ পড়াতে গিয়ে বিশেষ্য, বিশেষণ, ক্রিয়া বোঝাতে তিনি আশ্রয় নিয়েছিলেন কার্ডবোর্ডের মুকুটের!

 

এডুকেশন বাংলা/এজেড