মাদ্রাসাছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে শিক্ষক আটক

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

এডুকেশন বাংলা

প্রকাশিত : ০৫:৫৬ পিএম, ৩ নভেম্বর ২০১৯ রবিবার

ছবি: নিহত মো. শুভ হাসান

ছবি: নিহত মো. শুভ হাসান

ঢাকার কেরানীগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে হাফেজ আব্দুল মোক্তাদির (৩২) নামের এক শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (২ নভেম্বর) রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের দোলেশ্বর ইসলামিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। পরে অভিযুক্ত শিক্ষককে ওই মাদ্রাসা থেকেই আটক করা হয়।

নিহত মো. শুভ হাসানের (৭) বাড়ি বরিশালের উজিরপুর থানার ষোল গ্রামে। আর অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল মোক্তাদিরে বাড়ি নারয়ণগঞ্জের আড়াই হাজার থানার মাতাইল গ্রামে।

এদিকে রোববার (৩ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অ্যাডিশনাল এসপি রামানন্দ সরকার ঘটনস্থল পরিদর্শন ও শুভর পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছেন।

এছাড়াও এ ঘটনায় শুভর খালা ঝুমুর আহমেদ বাদী হয়ে আব্দুল মোক্তাদিরকে আসামি করে শনিবার রাত ১২টায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইমরান উকিল।

তিনি জানান, শুভ ও তার ছোট ভাই শান্ত হোসেন (৬) দোলেশ্বর ইসলামিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার নুরানী বিভাগের ছাত্র। তারা ওই মাদ্রাসায় থেকেই লেখাপড়া করে। শুক্রবার (১ নভেম্বর) মাদ্রাসার শিক্ষক মোক্তাদির তার রুমে শুভকে ডেকে নিয়ে যায়।

পরে বেয়াদবির অভিযোগ এনে শুভকে লাঠি দিয়ে বেদম মারধর করে। এতে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। শনিবার সকালে গুরুতর অসুস্থ হলে মাদ্রাসার ছাত্ররা শুভর খালা ঝুমুর আহমেদকে খবর দেয়। পরে তারা শুভকে বসুন্ধরা আদদীন হাসপাতালে নিয়ে যান।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৮টায় শুভর মৃত্যু হয়।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় রাতেই ওই মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতির সহায়তায় আব্দুল মোক্তাদিরকে আটক করা হয়। আটকের পর সে পুলিশকে জানায়, তার সঙ্গে বেয়াদবি করায় শুভকে সে লাঠি দিয়ে পিটিয়েছে।

এডুকেশন/ কেআর