রাজীবের পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ হাইকোর্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক

এডুকেশন বাংলা

প্রকাশিত : ০২:৫৬ পিএম, ২০ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৫:১৩ পিএম, ২০ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার

দুই বাসের মাঝে পড়ে হাত হারানোর পর মৃত্যুর ঘটনায় রাজধানীর তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব হাসানের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

রায়ে স্বজন পরিবহন ২৫ লাখ এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) কর্তৃপক্ষ বাকী ২৫ লাখ টাকা দুই মাসের মধ্যে দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

গত ৩ এপ্রিল রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় দু’বাসের রেষারেষিতে হাত কাটা পড়ে কলেজছাত্র রাজীবের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ১৬ এপ্রিল দিনগত রাত ১২টা ৪০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব।

এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর ৪ এপ্রিল রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। হাইকোর্ট এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের রুল জারিসহ রাজীবের চিকিৎসার খরচ দু’ বাস মালিক বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনকে বহনের নির্দেশ দেন। রুলে তাকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে এক কোটি টাকা দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, সাধারণ যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিদ্যমান আইন কঠোরভাবে কার্যকর করতে কেন নির্দেশনা দেওয়া হবে না এবং প্রয়োজনে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে আইন সংশোধন বা নতুন করে বিধিমালা প্রণয়নের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চান হাইকোর্ট। তবে আজ বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের রায়ে স্বজন পরিবহন ২৫ লাখ এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) কর্তৃপক্ষ বাকী ২৫ লাখ টাকা দুই মাসের মধ্যে দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এডুকেশন বাংলা/একে