চীন সফরে সতর্কতা জারি করলো কানাডা

এডুকেশন বাংলা

প্রকাশিত : ০৩:০৪ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৩:০৪ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ মঙ্গলবার

চীনের একটি আদালত কানাডীয় নাগরিকের মৃত্যুদণ্ড রায় দেয়ার পর এই সতর্কতা জারি করলো কানাডা সরকার।

চীন সফরের সময় ‘সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন’ করতে কানাডা তার দেশের নাগরিকদের সতর্ক করেছে। মাদক পাচারের অভিযোগে দেশটিতে কানাডীয় এক নাগরিককে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার পর অটোয়া এ সতর্কতা জারি করলো। খবর এএফপি’র।

সংশোধিত এ সতর্ক বার্তায় ভ্রমণকারীদের চীনের স্থানীয় আইনের স্বেচ্ছাচারী প্রয়োগের ব্যাপারে সাবধান থাকতে বলা হয়েছে। এতে আরো উল্লেখ করা হয়, যে কোন মুহূর্তে নিরাপত্তা পরিস্থিতি পাল্টে যেতে পারে।

মাদক পাচার করার অভিযোগে কানাডার নাগরিক রবার্ট শেলেনবার্গকে সোমবার চীনের একটি আদালত মৃত্যুদণ্ড দেয়ার কয়েক ঘণ্টা পর সর্বশেষ এ সতর্কতা জারি করা হলো।

২০১৮ সালে রবার্ট শেলেনবার্গ (৩৬) নামের ওই কানাডীয় নাগরিককে ১৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল একটি নিম্ন আদালত। কিন্তু দেশটির আপিল আদালত সোমবার ওই ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ডের রায় দিল। শেলেনবার্গ আদালতের মূল সাজার বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করেছিলেন।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ‘স্বেচ্ছাচারীভাবে’ সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়ায় বেইজিংকে অভিযুক্ত করেছে। এতে এ দু’দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের আরো অবনতি ঘটছে।

গত মাসে চীনের টেলিকম জায়ান্ট কোম্পানি হুয়াউও’র শীর্ষ নির্বাহী কানাডায় গ্রেফতার হওয়ায় বেইজিং ক্ষুব্ধ হওয়ার প্রেক্ষপটে এ মৃত্যুদন্ড দেয়া হলো বলে মনে করা হচ্ছে। ইরানে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রের বহি:সমর্পন অনুরোধের প্রেক্ষিতে হুয়াউও’র শীর্ষ নির্বাহীকে কানাডায় গ্রেফতার করা হয়।

পরে চীনা কর্তৃপক্ষ জাতীয় নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ এমন সন্দেহে কানাডার দুই নাগরিককে আটক করে। এ দু’জনের একজন সাবেক কূটনীতিক ও অপরজন ব্যবসায়িক পরামর্শক। হুয়াউও’র নির্বাহীর গ্রেফতারের প্রতিশোধ নিতেই কানাডার এ দুই নাগরিককে গ্রেফতার করা হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এডুকেশন বাংলা/একে