রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ৫:২০ এএম


১১তম গ্রেডে সরকার নিশ্চয়তা নয়, আশ্বাস দিয়েছিলো

হাবিবুর রহমান আখন্দ

প্রকাশিত: ১০:২২, ১১ জুলাই ২০১৯  

আমরা নিশ্চয়ই জানি সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড প্রদানের বিষয়ে সরকার প্রতিশ্রুতি বা নিশ্চয়তা দেয়নি। যা পেয়েছি তা আশ্বাস মাত্র। সে আশ্বাসের উপর ভর করে আমাদের দাবী আদায়ে সচেষ্ট না হলে বা সাধ্যমত যাবতীয় প্রন্থা অবলম্বন না করলে শুধু মুজিব বর্ষ নয় আগামী এক যুগ কেটে যাবে আশ্বাসের উপর ভর করে। সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড প্রদান সরকার মহোদয়ের একান্ত সদিচ্ছার উপরই নির্ভর করে। ফলে সরকারের সদিচ্ছা থাকলে রিট আবেদন সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড প্রাপ্তিতে কোন প্রতিবন্ধকতা নয় বরং ত্বরান্বিত করবে।

সহকারী শিক্ষকরা বিভিন্ন ভাবে নিগ্রহের স্বীকার। তিন লক্ষাধিক শিক্ষকের একটি শিক্ষক পরিবার থাকলেও আমরা কি আমাদের অধিকার আদায় করে নিতে পেরেছি? পৃথিবীর অনেক দেশেই শিক্ষকরা সর্বোচ্চ সম্মান ও আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকে। অথচ আমাদের দেশের শিক্ষকরা ৩য় শ্রেণির কর্মচারি।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বদলী কার্যক্রম কেন শুধু তিন মাস চলবে? এটি কি শিক্ষকদের উপর চাপিয়ে দেয়া কালাকানুন নয়? কেন তারা মহাপরিচলক পর্যন্ত শতভাগ পদোন্নতি পাবেন না? যার ফলে দেশের সামগ্রিক শিক্ষা ব্যাবস্থা উপকৃত হবে। কেন তারা নন ভেকেশনাল ডিপার্ট্মেন্টের স্বীকৃতি পাবে না? অথচ তাদের ছুটি ভেকেশনাল ডিপার্ট্মেন্টের চেয়ে কম।

শিক্ষকরা আজও এসকল বঞ্চনাসহ আরো অনেক বঞ্চনার স্বীকার শুধুমাত্র শিক্ষকদের মধ্যে অনৈক্যের কারণে।

একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মানস্মমত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত কল্পে শিক্ষকদের নিম্নলিখিত দাবী সমূহ শিক্ষা বান্ধব সরকার মহোদয় অতি দ্রুত বাস্তবায়ন করবেন বলে আশা করি

ক) সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড ও প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড।

খ) সহকারী শিক্ষক পদকে এন্ট্র পদ ধরে মহাপরিচালক পর্যন্ত শতভাগ পদোন্নতি।

গ) নন ভেকেশনাল ডিপার্ট্মেন্ট ঘোষনা।

ঘ) শিশুবান্ধব সময়সূচি ও রুটীন।

ঙ) সারা বছর বদলীর সুযোগ।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর