মঙ্গলবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:২৫ পিএম

Sonargaon University Dhaka Bangladesh
University of Global Village (UGV)

স্যার, সবাই রোহিঙ্গাদের নিয়ে চিন্তা করে। আমাদের কথা কেউ ভাবেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:১৫, ৫ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ১০:১৬, ৫ আগস্ট ২০১৮

গত ৩ ও ৪ আগস্ট টেকনাফ ও উখিয়ায় ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়। রোহিঙ্গাদের আগমনে ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত দুইদিনের ওয়ার্কশপে সহায়তা করে ইউনিসেফ। ওয়ার্কশপে শিক্ষার্থীদের শতভাগ উপৃবত্তি, মিড ডে মিল চালু, শিক্ষক নিয়োগ ও আসবাবপত্র সরবরাহসহ কতিপয় সুপারিশ করেছেন শিক্ষা প্রশাসকরা ।


এ সম্পর্কে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক মো: মাহাবুবুর রহমান শনিবার বলেন, এই এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের জন্য স্পেশাল কিছু ব্যবস্থা না নিলে শিক্ষায় তারা পিছিয়ে পড়বে। শিক্ষার্থী ধরে রাখতে শতভাগ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি প্রদান, মিডডে মিল চালু ও খন্ডকালীন শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার জরুরি।

তিনি বলেন, দুইদিনে টেকনাফ ও উখিয়ার শিক্ষকরা আমাদেরকে কাছে পেয়ে তাদের দূর্দশার কথা বর্ণনা করেন। যা শুনে মন খারাপ হতে হবে সবার।

মহাপরিচালক বলেন, সড়কপথ অনিরাপদ হওয়ায় ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়ার হার কমেছে। হঠাৎ লাখ লাখ রোহিঙ্গা এসে স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসায় অবস্থান নেয়ায় সেখানকার স্যানিটেশন, আসবাবপত্রসহ প্রায় সব শিক্ষা উপকরণের ক্ষতি হয়েছে।

অনেক শিক্ষার্থী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পার্টটাইম কাজ করে টাকা কামাইয়ে ব্যস্ত। শুধু পরীক্ষার সময়ে হাজির হয় কেউ কেউ। কিছু শিক্ষা শিক্ষকও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করছেন।

মহাপরিচালককে বলেন, টেকনাফ ও উখিয়ার অধিকাংশ শিক্ষক আমাদেরকে বলেন, “স্যার সবাই রোহিঙ্গাদের নিয়ে চিন্তা করে। আমাদের কথা কেউ ভাবেন না। আপনারা ভেবেছেন, আমাদের কাছে জানতে চেয়েছেন আমাদের সমস্যার কথা, এতে আমরা যারপরনাই খুশী।”

ওয়ার্কশপে শুক্রবার উখিয়ায় প্রধান প্রতিষ্ঠান প্রধান ও স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা অংশ নেন। টেকনাফে হয়েছে শনিবার।শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুইজন অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্ম-সচিব এবং শিক্ষা অধিদপ্তরের কয়েকজন কর্মকর্তা অংশ নেন।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর