সোমবার ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৩:৫৪ এএম


১ অক্টোবর থেকে স্কুল কলেজে অটোমেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:৫৮, ২৫ এপ্রিল ২০১৮   আপডেট: ০২:১২, ২৬ এপ্রিল ২০১৮

আগামী ১ অক্টোবর থেকে অটোমেশন সফটওয়্যারের মাধ্যমে সারা দেশের স্কুল কলেজে পরিদর্শন করা হবে। এ পদ্ধতি চালু হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ডিআইএ কর্মকর্তাদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত হবে মনে করা হচেছ।

সারা দেশের প্রায় ৩৬ হাজার এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করার দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিআইএ’র।

ডিআইএ’র কর্মকর্তারা জানান, গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর প্রতিযোগিতামূলক টেন্ডারের মাধ্যমে ‘ইটিএল’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে অটোমেশন সফটওয়্যার তৈরির কাজ দেওয়া হয়েছে। সফটওয়্যারের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিরীক্ষা (অডিট) সুযোগ রাখা হয়েছে। প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি পোর্টাল থাকবে। অডিট করার আগে প্রতিষ্ঠান প্রধানকে তা ই-মেইল করে জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রতিষ্ঠান প্রধানকে অনলাইনে নির্ধারিত ফরমে সকল তথ্য পূরণ করতে সময় বেধে দেওয়া হবে।

এরপর ডিআইএর পরিদর্শন কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে গিয়ে অনলাইনে থেকে তথ্য যাছাই করবেন। তথ্য যাছাইয়ের সময় ডিআইএ’র শীর্ষ কর্মকর্তা অনলাইনে মনিটরিং করবেন। পরিদর্শন শেষে অনলাইনে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। যা সংশ্লিষ্ট সবাই দেখতে পাবেন। চূড়ান্ত কাজ শুরুর আগে প্রতিটি জেলার কিছু প্রতিষ্ঠানে পাইলোটিং করা হবে।  

অটোমেশন সফটওয়্যারে শিক্ষকদের ক্লাসে পাঠদানের দক্ষতা মূল্যায়নের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। অটোমেশন কার্যক্রমটি চালু হলে শিক্ষকরা ক্লাসে কোন বিষয়ে পাঠদান করবেন তা আগের দিন নিজ প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে দিতে হবে। শিক্ষার্থীরা তার ওপর ধারণা নিয়ে ক্লাসে আসবে। শিক্ষকরা ক্লাসে কী পাঠদান করছেন তা সফটওয়্যারের মাধ্যমে মনিটরিং করবেন ডিআইএ কর্মকর্তারা। শিক্ষকদের দুর্বলতা থাকলে পরামর্শ দিবেন। একই সফটওয়্যারের মাধ্যমে ডিআইএ’র কর্মকর্তাদের সকল কার্যক্রমও মনিটরিং করা হবে। 

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে গিয়ে ঘুষ দাবির সুযোগ আর থাকছে না পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতর (ডিআইএ) কর্মকর্তাদের। অটোমেশন পদ্ধতিতে শ্রেণি কক্ষে শিক্ষকদের পাঠদানসহ ডিইআইর সকল কার্যক্রম মনিটরিং করা হবে।

ডিআইএ যুগ্ম পরিচালক বিপুল চন্দ্র সরকার বলেন,‘আগামী ১ অক্টোবর থেকে ডিআইএর সকল কার্যক্রম অটোমেশনে রূপান্তর হবে। কোনো কিছুই আর ম্যানুয়ালি করা হবে না। অটোমেশন কার্যক্রমটি চালু হলে পরিদর্শনের সকল কাজ অনলাইনে করা হবে। ডিআইএ হবে বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল অধিদফতর।’ 

পরিদর্শন কর্মকর্তার অবস্থান অনলাইনে ট্যাগ থাকবে। তিনি কোথায় অবস্থান করছেন, কী করছেন, কখন তার পরিদর্শন কাজ শেষ হবে- সব কিছুই অনলাইনে মনিটরিং করা হবে।

 

 

 

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর