মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ৭:১৭ এএম


স্কুলশিক্ষিকাকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় সাবেক স্বামী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১২:৫৪, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে চলন্ত ইজিবাইক থেকে নামিয়ে ফাতেমা বেগম (৩০) নামে এক শিক্ষিকাকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে তার প্রাক্তন স্বামী। তিনি উপজেলার হরণী ইউনিয়নের টাংকির বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা। বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পরে ওই শিক্ষিকার সঙ্গে থাকা অন্য দুই নারী শিক্ষকসহ আশেপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে বিকেলে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দিয়েছেন। ঘটনার পর পরই এলাকার লোকজন ঘেরাও করে শিক্ষিকার স্বামী মো. ওমর ফারুককে (৩৫) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সহকারী শিক্ষিকা পলাশী রানী দাস জানান, দুপুর সোয়া ২টার দিকে বিদ্যালয় ছুটির পর তারা তিন শিক্ষিকা টাংকির বাজার থেকে হাতিয়া বাজারের উদ্দেশ্যে একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে ওঠেন। ইজিবাইকটি বিদ্যালয় থেকে আনুমানিক আধা কিলোমিটার দূরে যাওয়া মাত্র ওঁতপেতে থাকা সহকারী শিক্ষিকা ফাতেমা বেগমের প্রাক্তন স্বামী ওমর ফারুক একটি ধারালো দা পেছন থেকে ফাতেমাকে কোপ দেন। এরপর ফারুক এলোপাতাড়ি ফাতেমাকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। পরে তারা মুমূর্ষু অবস্থায় ফাতেমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

টাংকির বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাখাওয়াত হোসেন জানান, শিক্ষিকা ফাতেমা বেগমের গ্রামের বাড়ি হাতিয়ার চরইশ্বর ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায়। তাঁর প্রাক্তন স্বামী ওমর ফারুক পেশায় গাড়িচালক। বছরখানেক আগে ফাতেমার সঙ্গে তার ডিভোর্স হয়ে যায়। এরপর থেকে ফাতেমা দুই সন্তান নিয়ে হাতিয়া বাজারের পাশের একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

জানতে চাইলে হাতিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিসান আহমেদ জানান, স্কুল শিক্ষিকা ফাতেমা বেগমকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ফাতেমার প্রাক্তন স্বামী ফারুককে এলাকার লোকজন আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আহত ফাতেমার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিলে মামলা নেওয়া হবে।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর