শুক্রবার ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:০৪ এএম

Sonargaon University Dhaka Bangladesh
University of Global Village (UGV)

সেকায়েপ, সেসিপ, টিকিউআইসেপ-তিন প্রকল্প চলবে এক কর্মসূচিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৯:১৩, ২ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ০৮:৩০, ৩ ডিসেম্বর ২০১৮

শিক্ষার মান উন্নয়নে চালু করা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) পরিচালিত তিনটি প্রকল্প এখন থেকে পরিচালিত হবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে। প্রকল্পগুলো হলো, ‘সেকেন্ডারি অ্যাডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট’ (সেকায়েপ), ‘সেকেন্ডারি অ্যাডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম’ (সেসিপ) ও ‘টিচিং কোয়ালিটি ইম্প্রুভমেন্ট ইন সেকেন্ডারি অ্যাডুকেশন প্রজেক্ট’ (টিকিউআইসেপ)। প্রকল্পগুলোর মেয়াদ শেষ হওয়ার পর বিভিন্ন জটিলতার দেখা দেওয়ার পর এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ কর্মসূচির নাম দেওয়া হয়েছে ‘সেকেন্ডারি অ্যাডুকেশন ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম’ (এসএডিপি)। এই কর্মসূচি পরিচালনায় নতুন করে জাতীয় পর্যায়ের একটি বডিও তৈরি করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বেসরকারি মাধ্যমিক) জাবেদ আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘এই তিনটি প্রকল্প একটি কর্মসূচির আওতায় পরিচালিত হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সরাসরি তত্ত্বাবধান করবে।’

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মাউশির মাধ্যমে পরিচালিত তিনটি প্রকল্প নিয়ে কিছু জটিলতা দেখা দেয়। প্রকল্পগুলোর একটিতে কিছু অনিয়মের অভিযোগও ওঠে। তবে সফল প্রকল্প হিসেবে বিবেচিত ‘সেকায়েপ’ প্রকল্পের শিক্ষকদের নিয়োগ ও তাদের দাবি নিয়ে জটিলতায় পড়ে সরকার। এসব বিবেচনায় মন্ত্রণালয় দায়িত্ব নিয়ে প্রকল্পগুলো একটি কর্মসূচির আওতায় নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

কর্মসূচি পরিচালনায় সম্প্রতি জাতীয় পর্যায়ের একটি বডি তৈরি করা হয়েছে। একজনকে রাখা হয়েছে একজন ন্যাশনাল প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর। আর কর্মসূচির পরিচালনায় নির্বাহী প্রধান হিসেবে রাখা হয়েছে একজন প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর। দুই জন অতিরিক্ত সচিব এই দায়িত্ব পালন করবেন। ন্যাশনাল প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত (উন্নয়ন) ড. মো. মাহামুদ-উল-হক এবং প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বেসরকারি মাধ্যমিক) জাবেদ আহমেদ। এছাড়া, লাইন ডিরিক্টের হিসেবে থাকবেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট পরিচালকরা। এই কর্মসূচি পরিচালিত হবে সরকারি তহবিলের মাধ্যমে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বেসরকারি মাধ্যমিক) জাবেদ আহমেদ বলেন, ‘সরকারের রাজস্ব তহবিল থেকে এই তিনটি প্রকল্প একটি কর্মসূচির মাধ্যমে পরিচালিত হবে। এই তহবিলের ৮০ শতাংশ দেবে সরকার আর ২০ শতাংশ দেবে বিশ্বব্যাংক।’

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর