মঙ্গলবার ০৭ জুলাই, ২০২০ ৯:৪৬ এএম


`সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে জাবি উপাচার্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা'

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:৩৭, ৬ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১২:৪৭, ৭ নভেম্বর ২০১৯

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ নিয়ে আসলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) চলমান উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। তবে এখন পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কেউ কোনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি বলে জানান মন্ত্রী।

বুধবার (৬ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

নওফেল বলেন, কার কোনও অভিযোগ থাকলে প্রমাণসহ উপস্থাপন করলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো। কিন্তু, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ অস্থিতিশীল করা যাবে না। আমরা চাই না পরিবেশ অস্থিতিশীল হোক। পরিস্থিতির অবনতি হোক।

সরকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে সরাসরি হস্তক্ষেপ করে না উল্লেখ করে নওফেল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় একটি জ্ঞানের ক্ষেত্র। এটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। এখানে নির্দিষ্ট একটি কাঠামো রয়েছে। তারপরও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আমরা সেটি তদন্ত করে দেখবো। কেউ এখন পর্যন্ত সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দেননি। তাছাড়া অভিযোগ আনলেই তো হবে না, সেটি প্রমাণও হতে হবে।

এদিকে জাবির অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা ও হল ছাড়ার নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা। বুধবার (৬ নভেম্বর) সকাল থেকেই চলছে বিক্ষোভ।

এর আগে মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) দুপুরে ক্যাম্পাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে এক জরুরি সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের সভাপতিত্বে ওই সভায় ক্যাম্পাস অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়। কিন্তু এই ঘোষণা প্রত্যাখান করেই বিকেলে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা।

এর আগেও সোমবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা থেকে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে তার ভবনে অবরুদ্ধ করে রেখেছিল আন্দলোনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। অপরদিকে আন্দোলনকারীদের ঘিরে চার স্তর বিশিষ্ট বহর তৈরি করে মুখোমুখি অবস্থান নেন উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

এদিকে, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তির সব ধরনের কার্যক্রম স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে অনলাইনে বিষয়ভিত্তিক পছন্দক্রম ফরম পূরণ পূর্বের নির্দেশনা অনুযায়ী চলবে।

বুধবার (৬ নভেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) রহিমা কানিজ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, ৭ নভেম্বরের চারুকলা বিভাগের ব্যবহারিক পরীক্ষাও স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে ভর্তি বিষয়ক নির্দেশনা জানানো হবে।

এডুকেশন/কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর