শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৯:২৭ পিএম


সাবেক শিক্ষার্থীদের পদচারণায় উৎসবমুখর কুবি ক্যাম্পাস

সজীব বণিক,কুবি

প্রকাশিত: ১৭:২৮, ২৫ জানুয়ারি ২০২০  

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনকে কেন্দ্র করে গ্র্যাজুয়েটদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠছে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।আগামী ২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম সমাবর্তন। ফলে সাবেক শিক্ষার্থীদের পদচারণায় সরগরম ক্যাম্পাস প্রাঙ্গন।

সমাবর্তনে ৬টি অনুষদের মোট ৫ হাজার ৬৪৮জন শিক্ষার্থীকে মূল সনদ প্রদান করা হলেও  ২ হাজার ৮৮৮ জন গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থী সমাবর্তনে নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্যে স্নাতক ডিগ্রিধারী ১ হাজার ২২৩জন এবং স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী ১ হাজার ৬৬৫ জনের অংশগ্রহণে ক্যাম্পাসে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

বিশ্ববিদ্যালয়টির ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়,গ্র্যাজুয়েটরা নিজ নিজ বিভাগ থেকে সমাবর্তনের কস্টিউম সংগ্রহ করছেন।

সোমবার(২৭জানুয়ারি) বুধবার বিকেল ৩টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে সমাবর্তনের মূল পর্বের অনুষ্ঠান শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সুত্রে জানা যায়,সমাবর্তনে গ্র্যাজুয়েটদের সনদ প্রদান করতে উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. আব্দুল হামিদ।সমাবর্তনে প্রধান বক্তা হিসেবে গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল। পাশাপাশি বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি  কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী শহীদুল্লাহ।

তবে মূল অনুষ্ঠানের আগেই ক্যাম্পাসজুড়ে স্নাতক ডিগ্রিধারীরা সমাবর্তনের গাউন ও ক্যাপ পরিধান করে দলবেঁধে, পরিবার-পরিজন নিয়ে মনের আনন্দে ক্যাম্পাসে বিচরণ করছেন। সব জায়গায় উড়ছে কালো ক্যাপ।অনুষ্ঠানের একদিন বাকি থাকলেও অপেক্ষা যেন সইছে না তাদের। গাউন পেয়েই মুহূর্তগুলো স্মরণীয় করে রাখতে বিভিন্ন আঙ্গিকে ছবি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী আহসান হাবীব।তিনি বর্তমানে উপজেলা নির্বাচন অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি বলেন ক্যাম্পাসজীবনে সাংবাদিকতা করেছি।সেই সুবাদে প্রিয় এ ক্যাম্পাসের প্রতিটি প্রাণের সাথে যেন আমার অনন্তকালের আত্মার বন্ধন। প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির বিস্তর ফারাককে পাশ কাটিয়ে প্রথম সমাবর্তনকে কেন্দ্র করে সহপাঠী, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, জুনিয়র ভাই-বোনসহ সকলে মিলে আনন্দের হাট বসবে লাল পাহাড়ের সবুজ ক্যাম্পাসে। এই আনন্দে মনোচিত্তে আজ আনন্দ আর উচ্ছ্বাসের অভূতপূর্ব শিহরণ জাগছে।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, অনেক শিক্ষার্থী বাবা-মা ও স্বামীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে এসেছেন।প্রথম সমাবর্তনকে সামনে রেখে তাদের বাড়তি আনন্দ যেন জোগান দিচ্ছে তাদের মাঝে।

এ ব্যাপারে কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে জানা যায়,প্রথম সমাবর্তনে  পরিবারের মা-বাবা ও স্বামীকে নিয়ে আনন্দ ভাগাভাগি করছি।সবার সাথে অনেক বছর পর দেখা হচ্ছে।এ মিলনমেলা যেনো আমাদেরকে উদ্বেলিত করছে।

তাছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাবর্ষের ১৪ শিক্ষার্থী প্রথম সমাবর্তনে চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক পাবেন। বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়টির আচার্য মো. আবদুল হামিদের কাছ থেকে এ স্বর্ণপদক গ্রহণ করবেন তারা।

এডুকেশন বাংলা / এসআই

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর