শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৩:১৫ পিএম


সকল অনিয়ম-দুর্নীতি তদন্তের দাবি প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের

রাবি প্রতিনিধি:

প্রকাশিত: ১৮:৫০, ২৩ জানুয়ারি ২০২০  

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) সকল প্রকার অনিয়ম ও দুর্নীতির তদন্তের দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এ দাবি জানান সংগঠনটির আহ্বায়ক অধ্যাপক মজিবুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক বর্তমান প্রশাসনের দুর্নীতি নিয়ে কথা বলছেন। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ মিজানউদ্দিনের আমলে ইতিহাসের সব থেকে বড় আলোচিত ও তদন্তের মাধ্যমে প্রমাণিত ১০ কোটি টাকার অতিথি নিবাস দুর্নীতির ঘটনা তারা এড়িয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক নিমার্ণে ১ হাজার ৪০০ কেজি তামার জায়গায় ৪৯২ কেজি তামা ব্যবহার, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের অনিয়মসহ সাম্প্রতিক সময়ে তদন্তাধীন অনেক একাডেমিক দুর্নীতির বিষয়ও তারা এড়িয়ে যাচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থে নৈতিক মনোবলে বিশ্বাসী কোনো শিক্ষক তো সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির তদন্ত ও বিচার চাইবেন। কিন্তু তারা খণ্ডিত কিছু অনিয়মের কথা উত্থাপন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, এ কয়েকজন শিক্ষক সম্পর্কে খেঁাজ নিয়ে জানতে পেরেছি যে তারা বেশিরভাগই উপাচার্য অধ্যাপক মিজানউদ্দিনের আমলে নানা প্রশাসনিক দায়িত্বে ছিলেন ও তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তাধীন রয়েছে। তাদের সাথে যুক্ত আরও অনেকের বিরুদ্ধে নানা একাডেমিক অনিয়ম-দুর্নীতির তদন্ত চলছে। তবে নিজেদের দুর্নীতিকে আড়াল করার জন্য যারা কূটকৌশল অবলম্বন করে প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ তাদেরকে ধিক্কার জানায়। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়কে দুর্নীতিমুক্ত ও আইনের শাসন রক্ষার স্বার্থে সকল অনিয়ম-দুর্নীতির তদন্ত এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক এস এম আবু বকর, ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক চিত্তরঞ্জন মিশ্র, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের প্রশাসক অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র শীল, ভূতত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এডুেকশন বাংলা / এসআই

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর