বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ১৭:৪৩ পিএম


শীতকালীন ছুটি পাচ্ছেন না শিক্ষকরা!

এডুকেশন বাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:৩৯, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

৪৯তম জাতীয় স্কুল, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ১৭ ডিসেম্বর থেকে প্রতিষ্ঠান পর্যায়ের প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে আগামী ২২ জানুয়ারি জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতা শেষ হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এদিকে ১৫ থেকে ২৯ ডিসেম্বর স্কুল কলেজের শীতকালীন ছুটি। ছুটির মধ্যে শীতকালীন প্রতিযোগিতার আয়োজন করায় এ ক্ষুব্ধ শিক্ষকরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করছেন শিক্ষকরা।

জানা গেছে, স্কুল, মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠান পর্যায়ের প্রতিযোগিতা আগামী ১৭ থেকে ২০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। ২২ থেকে ২৯ ডিসেম্বর উপজেলা ও থানা পর্যায়ের, ৩১ ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। তবে, ১ জানুয়ারি বই দিবস উপলক্ষে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা বন্ধ থাকবে। আর ৯ থেকে ১১ জানুয়ারি উপ অঞ্চল পর্যায়ের, ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি অঞ্চল পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া আগামী ১৭ জানুয়ারি থেকে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরে একাধিক কর্মকর্তা।

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এবারে অ্যাথলেটিক্স দড়িলাফ ইভেন্ট, হকি, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন ও টেবিল টেনিস ইভেন্টে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। ছাত্র ছাত্রীরা আলাদা ইভেন্টে এসব প্রতিযোগিতায় অংশ নিবেন। তবে, ব্যাডমিন্টন ও টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতায় ছাত্র-ছাত্রীরা দ্বৈতভাবে অংশ নিতে পারবেন।

এদিকে গত জানুয়ারিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ অনুমোদিত স্কুল ছুটির তালিকায় ১৫ থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত শীতকালীন অবকাশ, বিজয় দিবস ও বড়দিন উপলক্ষে ছুটি ঘোষণা করা হয়।

এদিকে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে অনুমোদিত মাদরাসা ছুটির তালিকায় ১৮ থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত শীতকালীন অবকাশ ও হযরত ঈসা (আ.) জন্মদিন উপলক্ষে ছুটি ঘোষাণা করা হয়। ছুটির মধ্যেই ১৭ ডিসেম্বর থেকে আগামী ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সময় নিধারণ করায় ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন শিক্ষকরা।

মাহিদুল হাসান জুবায়ের নামের এক শিক্ষক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে মন্তব্য করেন, ‘অন্য ছুটিতে প্রতিষ্ঠানে আসতে হবে, শীতকালিন ছুটিতে খেলার মাঠে যেতে হবে। বাহ!’

ইমতিয়াজ হোসেন মাদনী মন্তব্য করেছেন, ‘ভেরী গুড এই না হলে শিক্ষা‌বিদ? বন্ধের ম‌ধ্যে খেলা? সবাই যে যার মত গ্রা‌মের বা‌ড়ি‌তে , নানার বা‌ড়ীতে খেলাধুলা ক‌রে প্র‌তিষ্ঠান থেকে প্রাইজ নি‌য়ে যাবে।’

হোসনে আর পারভীন ফেসবুকে মন্তব্য করেন, ‘বার্ষিক পরীক্ষার খাতা দেখা রেজাল্ট কার্ড তৈরি করা বাদ দিয়ে এগুলোই করি।’

এম জে উদ্দীন ফেসবুকে মন্তব্য করেন, ‘স্কুল ১৫ থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকারি বন্ধ । মাদরাসা ১৮ থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকারি বন্ধ। কার সাথে কে খেলবে?’

সত্যজিৎ বাগচী ফেসবুকে মন্তব্য করেছেন, ‘উদ্ভট উটের পিঠে দেশ চলেছে, ছুটির মধ্যে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা।’

এডুকেশন বাংলা/ কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর