শনিবার ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১১:২৭ এএম


শিক্ষক কর্মচারি ৮ জন, ছাত্রছাত্রী ১৮ জন

প্রকাশিত: ০০:২৫, ৬ জুলাই ২০১৯  

আমোদপুর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তিন ক্লাস মিলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৮ জন। এর মধ্যে নিয়মিত উপস্থিত ১২ থেকে ১৫ জন। শিক্ষক কর্মচারী রয়েছেন ৮ জন। এ সরকারের মাসিক খরচ প্রায় এক লাখ টাকা।

১৯৯৫ সালে বাঘা উপজেলার আমোদপুর গ্রামে ৬ জন শিক্ষক, ১ জন পিয়ন ও ১ জন নৈশ্য প্রহরী নিয়ে চালু করা হয় এই স্কুলটি। সে সময় ওই বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪০ জন। যা বর্তমানে এসে দাঁড়িয়েছে ১৮ জনে।

ওই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, আমি ৯৫ সালে ওই স্কুলটি স্থাপন করার পর শিক্ষার্থী ভালোই ছিল। পরবর্তী সময়ে পাশের গ্রাম তেপুখুরিয়া স্কুল চালু হওয়ায় আমি আমার পদ থেকে সরে দাঁড়াই। তারপর থেকে এই স্কুলের শিক্ষক এবং ম্যানেজিং কমিটির দ্বন্দ্বে শিক্ষার্থী ধরে রাখতে পারেনি।

তার মতে, প্রধানশিক্ষকসহ অন্যান্যরা সঠিক সময় মেনে স্কুলে আসেন না। এ কারণে স্কুলটির লেখা-পড়া বর্তমানে মুখ থুবড়ে পড়েছে। একই কথা বলেন শিক্ষার্থী অভিভাবকরা।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আরিফুল ইসলামের বক্তব্য হলো আগে তিনি ওই স্কুলের পড়া-লেখা এবং কম সংখ্যাক শিক্ষার্থীর বিষয়ে স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতিকে অবগত করেছেন

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর