সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১:৫৩ এএম


শিক্ষকদের টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালের রায়!

জয়নাল আবেদীন

প্রকাশিত: ০৮:৫৩, ২৪ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ১১:০৫, ২৪ আগস্ট ২০১৯

জাতীয় বেতন স্কেল,২০১৫ এ টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাতিল করে ১০/১৬ বছরের স্বয়ংক্রিয় উচ্চতর গ্রেড চালু করা হয়। সে অনুযায়ী জাতীয় বেতন স্কেল,২০১৫ এর গেজেট প্রকাশের পূর্বদিন পর্যন্ত অর্থাৎ ১৪/১২/২০১৫ পর্যন্ত টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বহাল রাখা হয়।

অন্যদিকে, সরকার ২০১২ সালের ১৫ মে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদেরকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করে। তাই তারা জাতীয় বেতন স্কেল,২০০৯ এর ৭(২) এবং ৭(৯) অনুযায়ী ৪ বছর পূর্তিতে ২০১৬ সালের ১২ মে সিলেকশন গ্রেড পেয়ে ৯ম গ্রেড, ৮ বছর পূর্তিতে ২০২০ সালের ১২ মে ১ম টাইমস্কেল পেয়ে ৮ম গ্রেড এবং ২০২৪ সালের ১২ মে ২য় টাইমস্কেল পেয়ে ৭ম গ্রেড পাওয়ার কথা।

কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ১৫/১২/২০১৫ হতে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাতিল হয়ে গেলে ২০১৬ সালের ১২ মে ৪ বছর পূর্তিতে সিলেকশন গ্রেড পাওয়ার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়। এরপর সংক্ষুব্ধ সহকারী শিক্ষকগণ টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালের দাবিতে হাইকোর্টে রিট মামলা দায়ের করেন। এই রিট মামলায় টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহাল করে রায়ের কপি পাওয়ার ৩ মাসের মধ্যে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন মহামান্য আদালত।

এই রিট মামলার রায়ে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকগণ যদি ২০১৬ সালের ১৫ মে ৪ বছর পূর্তিতে সিলেকশন গ্রেড পান তবে নিশ্চয়ই অন্যান্য ডিপার্টমেন্টে কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারিরা অনুরুপভাবে প্রাপ্য হবেন।

(লেখকের ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে নেওয়া)


এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর