মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ৩:৫৩ এএম


রাবিতে ইসলামের ইতিহাস বিভাগের দুই দিনব্যাপী সম্মেলন শুরু

রাবি প্রতিনিধি:

প্রকাশিত: ১৮:২৪, ২৩ জানুয়ারি ২০২০  

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে দুই দিনব্যাপী তৃতীয় দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বিশ^বিদ্যালয়ের শহিদুল্লাহ্ একাডেমিক ভবনের সামনে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা।

উদ্বোধন শেষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনের সামনে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে মিলনায়তনে সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক এম.এ বারীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপ-উপাচার্য চৌধুরী মো. জাকারিয়া বলেন, বিশ^বিদ্যালয়ের একটি অন্যতম একটি পথিকৃত বিভাগ হচ্ছে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ। বিগত বছরগুলোতে এ বিভাগ সংশ্লিষ্ট পঠন ও পাঠনের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ কর্মে সফলতার পাশাপাশি অনেক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত রাখবে এবং দেশ ও জাতির উত্তোরোত্তর সমৃদ্ধি বয়ে আনবে বলে আশা করর্ছি।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা বলেন, সমাজের সকল অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে যুব সমাজকে রুখে দাঁড়াতে হবে। বর্তমান প্রজন্মকে ধ্যান-জ্ঞান, প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে দেশ ও জাতির উন্নয়নে অ্যালামনাইদের কাজ করতে হবে। তবেই দেশের এসডিজিএস যে লক্ষ্যমাত্রা তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।

বিভাগের অধ্যাপক মাহফুজুর রহমান আকন্দ ও সহযোগী অধ্যাপক আশিয়ারা খাতুনের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্বিবিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ এ.কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান আল আরিফ, কলা অনুষদের অধিকর্তা ও বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. এম ফজলুর রহমান, ইমেরিটাস অধ্যাপক ড এ.কে.এম ইয়াকুব আলী, প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানসহ বিভাগের শিক্ষক ও সাবেক-বর্তমান শিক্ষার্থীরা।

পরে বিকেল চার থেকে বিভাগের উন্নয়ন নিয়ে অ্যালামনাইদের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে প্রথমদিনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়। শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে স্মৃতিচারণ ও বিকেলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনের সমাপ্তি ঘটবে।


এডুেকশন বাংলা / এসআই

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর