রবিবার ০৫ এপ্রিল, ২০২০ ২২:২৩ পিএম


রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান মানলেন না হোম কোয়ারেনটাইন

রাজশাহী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:২২, ২২ মার্চ ২০২০  

দুই সপ্তাহের কানাডা সফর শেষে গত ১১ মার্চ রাতে দেশে ফেরেন রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহা. মোকবুল হোসেন।

নিয়ম অনুযায়ী আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত তার হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা। কিন্তু তা মানছেন না তিনি। দেশে ফিরেই আলোচনা সভা, কেককাটা ও বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে অংশ নিয়েছেন তিনি। ফলে কোয়ারেন্টাইনের নির্ধারিত ১৪ দিন সময়ের মধ্যে তার সংস্পর্শে এসেছেন ওই সব অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া অতিথিসহ আরও অনেকে।

জানা গেছে, ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে কানাডা সফরে যান শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোকবুল হোসেন। দেশে ফেরেন ১১ মার্চ রাতে। রাজশাহীতে ফিরে ১৫ মার্চ শিক্ষা বোর্ডে নিজ দপ্তরে বসেন তিনি। এর মধ্যে গত ১৬ মার্চ রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশ নেন। ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। অতিথি ছিলেন শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান তানবিরুল আলম, রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক হবিবুর রহমান, রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. এস.আর তরফদার প্রমুখ।

১৭ মার্চ রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কেককাটা, ম্যুরাল উদ্বোধন, আলোচনা সভা ও প্রীতিভোজেও অংশ নেন অধ্যাপক মোকবুল হোসেন। ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেয়র লিটন। অতিথি ছিলেন জেলার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। অপর এক অনুষ্ঠানে মেয়র লিটনের পাশে দাঁড়িয়ে ছবিও তোলেন তিনি।

এসব বিষয়ে জানতে অধ্যাপক মোকবুল হোসেনকে ফোন করা হলে তিনি বলেন, `আমি সুস্থ আছি। মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়েই এসব অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছি। তবে অফিস করছি না।`

এদিকে হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেন না রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সিনিয়র জনসংযোগ কর্মকর্তা জিএম মোর্তুজাও। এক সপ্তাহের সফর শেষে গত ১০ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন তিনি। ১৫ মার্চ রুয়েটে নিজ দপ্তরে অফিস করেন মোর্তুজা। অংশ নেন রুয়েটে ১৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও। যেখানে রুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম শেখসহ শিক্ষক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া তার মালিকানাধীন রেডিও পদ্মার সহযোগিতায় প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের আয়োজনে কমিউনিটি রেডিও বিষয়ক ট্রেনিং প্রোগ্রামে অংশগ্রহণকারীদের সঙ্গেও সভা করেন জিএম মোর্তুজা। সেখানে ট্রেইনি ছিলেন ৩৫ জন।

তবে জিএম মোর্তুজা দাবি করেন, দেশে ফিরে জাস্ট জয়েন করতে অফিসে গিয়েছিলেন। সেভাবে বের হননি।

শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান ও রুয়েট জনসংযোগ কর্মকর্তা নিজেদের বিদেশ ভ্রমণ গোপন করে কোয়ারেন্টাইন না মানার বিষয়টি জানাজানি হলে ক্ষোভ জানিয়েছেন তাদের সংস্পর্শে আসা একাধিক ব্যক্তি এবং সাধারণ মানুষ।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক বলেন, `শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান কোয়ারেন্টাইন মানেননি। তাকে ভদ্র ভাষায় নিয়ম মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এখন তিনি কোয়ারেন্টাইন মেনে চলছেন বলে আমাদের নিশ্চিত করেছেন।`

রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য বলেন, শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান যেটি করেছেন, তা একেবারে উচিত হয়নি। কারণ তার সংস্পর্শে যেসব ব্যক্তি এসেছেন, তারাও এখন এক ধরনের শঙ্কার মধ্যে পড়ে গেলেন।

তিনি আরও জানান, শনিবার পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় বিদেশফেরত ১ হাজার ৭২৪ জনের তথ্য পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে এখন কোয়ারেন্টাইনে আছেন ২২৪ জন।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর