বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১২:১৬ পিএম


যে কারনে গণবিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বেতন বাড়ানো প্রয়োজন

অনল চৌধুরী

প্রকাশিত: ০৮:৩২, ২৯ জুলাই ২০১৯  

তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মাঝে মাঝেই দেশের বিভিন্ন গণবিশ্বদ্যািলয়ের ছাত্ররা নিজেদের দুই দলের মধ্যে সশস্ত্র সংঘাতে লিপ্ত হয় অথবা বিভিন্ন বিপণি বিতানে গিয়ে ভাংচুর চালায়। বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞান অর্জন ও জ্ঞান চর্চার জায়গা। মারামারি বা আইন ভাঙা যাদের পছন্দ, বিশ্ববিদ্যালয় তাদের জন্য না।

১০ টাকা বেতনে পড়া, ৫ টাকায় থাকা আর ২০ টাকায় তিন বেলা খাবার সুযোগ লাভের কারণেই এরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে এভাবে নষ্ট করছে। বেসরকারির মতো উচ্চ বেতনে পড়তে হলে তখন আর এদের এসব করার সুযোগ থাকত না। পরিবার বা নিজে কষ্ট করে পড়ার খরচ জোগাতে হতো, যেটা করতে হয় এদেশের ও উন্নত দেশগুলির বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের।

স্বাক্ষরতার হার কম হলেও পৃথিবীর যে কোনো উন্নত দেশের তুলনায় বাংলাদেশে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রিধারীর সংখ্যা অনেক বেশি। শিক্ষাখাতে সরকারি ভর্তুকির কারণেই গণবিশ্ববিদ্যালয় থেকে এত ডিগ্রিধারী বের হয়ে দেশে বেকারের সংখ্যা বাড়াচ্ছে। অথচ এর পরিবর্তে কারিগরি খাতে ব্যয় বাড়ানো হলে দেশে বেকারের সংখ্যা হ্রাস পেত। উন্নত দেশে উচ্চশিক্ষা অত্যন্ত ব্যয়বহুল। সেখানে যাদের পেশাগত কারণ খুব প্রয়োজন, তাই মাস্টার ডিগ্রি নেয়। এজন্য সেসব দেশে এমএ বা এমবিএ ডিগ্রিধারীদের সংখ্যাও অনেক কম।

অবিলম্বে বাংলাদেশের গণবিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পড়া, থাকা ও খাওয়ার খরচ বাড়ানো উচিত। জনগণের করের টাকায় লাঠিয়াল-সন্ত্রাসী পোষা চলবে না। ভবিষ্যতে কর্মজীবনে গেলেও এরা এরকম আইনবিরোধী কাজই করবে। অতএব সন্ত্রাস ও আইনবিরোধী কাজের সঙ্গে জড়িতদের বহিষ্কার করে বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে, যাতে কেউ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো পবিত্র জায়গাকে অপবিত্র করার সাহস না পায়।


এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর