শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:৩৫ পিএম


মুক্তিযোদ্ধা সনদ বাতিল:কোটায় চাকরিপ্রাপ্তদের কি হবে?

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৮:৪৩, ২৯ আগস্ট ২০১৯  

গত ২ বছরে ২৮৮ জনের নামে প্রকাশিত মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও গেজেট বাতিল করা হয়েছে। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) আইন বলে সংশ্লিষ্ট কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় পৃথক গেজেটের মাধ্যমে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে।

এর মধ্যে গত ৭ মাসেই বাতিল করা হয় ১৯৫ জনের সনদ ও গেজেট। এর ফলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা বন্ধ করা হলেও গভীর সংকট তৈরি হয়েছে এ সনদের ভিত্তিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় পাওয়া চাকরি নিয়ে।

এ সুবিধা ভোগ করে যাদের সন্তান ও নাতি-নাতনিরা চাকরি পেয়েছেন তাদের বিষয়টি এখন সামনে চলে এসেছে। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলছেন, মুক্তিযোদ্ধা সনদের বৈধতা না থাকলে স্বাভাবিকভাবে এ ধরনের মুক্তিযোদ্ধা কোটায় পাওয়া চাকরির বৈধতাও থাকে না।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বুধবার নিজ দফতরে বলেন, ‘মিথ্যা তথ্য দেয়ার কারণে কারও গেজেট বাতিল হলে সেখানে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরির দায়িত্ব সরকার নেবে কেন। আইন অনুযায়ী যা হওয়ার তাই হবে।’

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এসএম আরিফ-উর-রহমান বলেন, ‘এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। আমরাও বিষয়টি নিয়ে ভাবছি। তবে দেখুন, আমরা তো বাতিলের গেজেট প্রকাশ করছি। সেটি জানার পর কোনো মন্ত্রণালয় কিংবা সংশ্লিষ্ট সরকারি দফতর যদি আমাদের কাছে সুনির্দিষ্ট কারও বিষয়ে মতামত জানতে চায় তাহলে আমরা আমাদের অবস্থান তুলে ধরব। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের কাছে এ ধরনের চিঠিপত্র দেয়নি।’

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মিজানুর রহমান বলেন, ‘অবশ্যই এটি একটি জটিল ও কঠিন প্রশ্ন। তবে গেজেট বাতিলের ভিত্তিতে ওই কোটায় চাকরি পাওয়াদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আগে যারা সনদ দিয়েছেন তাদের দায়-দায়িত্বও নির্ধারণ হওয়া প্রয়োজন।’


এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর