সোমবার ১০ আগস্ট, ২০২০ ১০:৫৮ এএম


শিক্ষকদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন মতিঝিল মডেলের সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:২৭, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৮:৪২, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

রাজধানীর মতিঝিল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আওলাদ হোসেন নিজের টর্চার সেলে নিয়ে শিক্ষকদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন সভাপতি। কথায় কথায় বরখাস্ত করেন শিক্ষকদের। প্রতিষ্ঠানের কোটি কোটি টাকা আত্মসাতও করেছেন তিনি।

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে শিক্ষক-কর্মচারী ও অভিভাবক সভাপতির বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করেন।  তারা সভাপতি আওলাদ হোসেনের  অপসারণ ও নতুন সভাপতি মনোনয়নের দাবি জানান প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক ও অভিভাবকরা।

ওমর ফারুক নামে এক শিক্ষক বলেন, আমার বাবা নেই। শুয়োরের বাচ্চা, কুত্তার বাচ্চা বলে গালিগালাজ করে। প্রত্যেকটা টিচারকে সে গালিগালাজ করে। টর্চাল সেল একটা বানাইছে স্কুলে। ঢুকার সময় মনে হবে জান্নাতে প্রবেশ করছেন, বের হবার সময় কেঁদে বের হতে হয়। কেউ ঢুকতে পারবে না সেখানে। আমাকে দুই দুইবার সে সাসপেন্ড করেছে। বিনিময়ে টাকা চাইছে। সে হুমকি দিছে সে আওয়ামী লীগের দক্ষিণের সাবেক নেতা। সে বলছে টাকা দিলে তোর চাকরি থাকবে। আমার একমাত্র অবলম্বন এই চাকরি, যার কারণে টাকা দিছি।

এক হিন্দু শিক্ষক বলেন,আমাকে মালাউনের বাচ্চা বলে ভারত চলে যেতে বলেছে। তিনি  প্রতিষ্ঠান বাঁচাতে আওলাদ হোসেনের পদত্যাগ চান।

শিক্ষক সেলিনা আক্তার জাহান বলেন, ‌২৫ বছর ধরে চাকরি করছি। সে আমাদের ওপর অত্যাচার করেছে। মডেল স্কুল সে লুট করে ফেলেছে। ফান্ড সে শুন্য করে ফেলেছে। চাকরি শেষ হলে কি নিয়ে যাবো। সে ফকির থেকে চারটা বাড়ির মালিক হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

অপর এক শিক্ষক বলেন, উনি উনার মেয়ের চিকিৎসা করতে পারতেন না এই স্কুলে আসার আগে। এখানে আসার পর তিনি চারটা বাড়ির মালিক হয়েছেন। 

এডুকেশন বাংলা/ কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর