রবিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২২:০৮ পিএম


ভর্তি উৎসবের প্রস্তুতি নিচ্ছে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

জাককানইবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:৩২, ১৪ নভেম্বর ২০১৯  

১৭-২১ নভেম্বর জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা। এই ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

তবে এই উৎসবমূখর পরিবেশের মধ্যে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা যাতে কোনো ধরনের ভোগান্তি বা হয়রানির শিকার না হয় এবং সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের শেষ মূহুর্তের প্রস্তুতি চলছে।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা গেছে, ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে ক্যাম্পাসকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে । ক্যাম্পাসের আশে পাশের ঝোপঝাড়, পুকুরের কচুরিপানা পরিস্কার করা হচ্ছে। ভাঙ্গা রাস্তাগুলো মেরামতের কাজ চলছে।

ভর্তি পরীক্ষার্থীদের স্বাগত জানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ তম ব্যাচের (২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ) "তারুন্য -১৩" উদ্যোগে জয় বাংলা ভাস্কর্য থেকে চেকপোস্ট পর্যন্ত প্রায় পনে এক কিলোমিটার সুবিশাল আল্পনা আঁকা হয়েছে। আর যেটি বিশ্ববিদ্যালয়কে নতুন রঙ দিয়েছে।

এদিকে শৃঙ্খলারক্ষা, প্রক্সি, প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতিমুক্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠানের জন্য প্রক্টরিয়াল বডির নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ, আনসার, ও সাদা পোশাকে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এছাড়াও বিএনসিসি, রোভার স্কাউটস এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী সেচ্ছাসেবক হিসেবে ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সহযোগিতা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে বলে জানা গেছে ।

ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের জেলাভিত্তিক সংগঠন, সেচ্ছাসেবী সংগঠন, সামাজিক সংগঠন, বিভিন্ন সমিতি, ক্লাব, বিভাগগুলো, বিশ্ববিদ্যালয়ের আশে পাশের বিভিন্ন জায়গায় হেল্পিং বুথ বসিয়ে, বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার ও লিফলেট টাঙিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শিক্ষার্থীদের সহযোগিতার জন্য তাদের প্রস্তুতির জানান দিচ্ছে।

প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সহযোগিতার জন্য জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে ।

এদিকে ভর্তি পরীক্ষার সময় যেনো আশে পাশের হোটেলগুলোতে খাবারের মান ঠিক থাকে এবং খাবারের দাম বৃদ্ধি না পায় সেই ব্যাপারে হোটেল মালিকদেরকে নোটিশ পাঠিয়ে সতর্ক করে দিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এবার ভর্তি পরীক্ষার্থীদের সহযোগিতার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে ত্রিশালের স্থানীয় প্রশাসন। ত্রিশাল পৌরসভার মেয়র আনিসুজ্জামান আনিস ভর্তি পরীক্ষার সময় শিক্ষার্থীদের থাকার জন্য কিছু রুমের ব্যবস্থা, খাবার পানির ব্যবস্থা এবং পরীক্ষা চলাকালীন অভিভাবকদের বিশ্রামের জন্য সামিয়ানা ও চেয়ারের ব্যবস্থা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এছাড়া ভর্তি পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থীরা সবচেয়ে বেশি হয়রানির শিকার হয় যাতায়াত ভাড়া নিয়ে। বাসস্ট্যান্ড থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পর্যন্ত ১৫ টাকার ভাড়া বেরে ৩০-৪০ টাকা হয়। ভাড়া বৃদ্ধি রোধে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা এবং কড়া নজরদারিতে রাখা হবে জানিয়েছে ত্রিশালের নগর পিতা।

উল্লেখ্য, আগামী ১৭ নভেম্বর `এ` ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে জাতীয় কবির নামে মহান প্রতিষ্ঠানটির ভর্তিযুদ্ধ।

এডুকেশন/কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর