মঙ্গলবার ১৬ জুলাই, ২০১৯ ০:০৪ এএম


বুয়েটে শিক্ষামন্ত্রীর আগমন নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বিভ্রান্তি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি :

প্রকাশিত: ১৫:০৮, ২০ জুন ২০১৯  

চলমান আন্দোলনের দাবি-দাওয়া শুনতে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ক্যাম্পাসে যেতে চেয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এ জন্য বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বুয়েট ক্যাফেটেরিয়ার সামনে জড়ো হয়ে মন্ত্রীর অপেক্ষায় রয়েছেন বুয়েটের আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তবে বেলা ১১টায় আসার কথা থাকলেও দুপুর ১টা পর্যন্ত তিনি আসেননি। তার আসা নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে।

বুয়েট ছাত্রলীগের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ হওয়ায় তথ্য আদান-প্রদানে এমন বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন একাধিক শিক্ষার্থী। এমনকি আন্দোলনকারীদের অপেক্ষার বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী জানেন না বলে কেউ কেউ মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে জানতে বেলা সাড়ে ১১টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বুয়েট ছাত্রলীগের সঙ্গে বুধবার বিকেলে আমার কথা হয়েছে। বুয়েট ক্যাম্পাসে গিয়ে আমি আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছি। তাদের দাবি মেনে নেয়া হবে, এ জন্য আন্দোলন প্রত্যাহার করতে বলা হয়।

মন্ত্রী বলেন, আন্দোলকারী শিক্ষার্থীদের দাবি-দাওয়া বাস্তবায়ন করতে আমি নিজ থেকে বুয়েট ক্যাম্পাসে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করি। আজ বেলা ১১টায় আমি আসতে চেয়েছিলাম, কিন্তু এখন পর্যন্ত আমাকে কোনো তথ্য জানানো হয়নি। এ কারণে আমার যাওয়া হয়নি। তবে শিক্ষার্থীরা যোগাযোগ করলে যেতে পারি, যাওয়ার আগে আপনাদের জানানো হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার জামী উস সানী বলেন, সকালে শিক্ষামন্ত্রী আমাকে ফোন করেন, তিনি আমার কাছে সর্বশেষ পরিস্থিতি জানতে চান, আমি তাকে পরিস্থিত তুলে ধরি। তিনি আসবেন কি না জানাবেন বলে জানিয়েছেন।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা শিক্ষামন্ত্রীর জন্য অপেক্ষা করছেন মন্ত্রী জানেন কি না- জানতে চাইলে সানী বলেন, শিক্ষামন্ত্রীকে বলা হয়েছে, তিনি সব পরিস্থিতি জানেন বলে জানান।

এদিকে, সকাল ৯টা থেকে শিক্ষামন্ত্রীর আগমনের জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন বুয়েট আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। মন্ত্রী এসে তাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে তারা মূল গেটের তালা খুলে দিয়ে অপেক্ষা করছেন। শিক্ষামন্ত্রীর কাছে তাদের ১৬ দফা দাবি তুলে ধরবেন। যদি মন্ত্রী তাদের দাবিগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের আশ্বাস দেন তবে আন্দোলন প্রত্যাহার নয়, কিছু দিনের জন্য স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে বলে জানান আন্দোলকারীরা।

আন্দোলনের মুখপাত্র হাসান সারোয়ার সৈকত বলেন, আমরা শিক্ষামন্ত্রীর আসার কথা শুনে অপেক্ষা করছি। মন্ত্রীর সঙ্গে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যোগাযোগ করছেন। তারা আমাদের জানিয়েছেন, শিক্ষামন্ত্রী বুয়েট ক্যাম্পাসে এসে আমাদের সঙ্গে কথা বলবেন, এ কারণে, সকাল থেকে আমরা অপেক্ষা করছি।

আন্দোলনের নেতৃত্বদানকারী আরেক শিক্ষার্থী ইসতিয়াক আহমেদ মুন্না বলেন, আমরা গত ৫ দিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে গেলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনও যোগাযোগ করা হয়নি, কিন্তু শিক্ষামন্ত্রী নিজ থেকে আমাদের ক্যাম্পাসে আসতে চেয়েছেন। তিনি আসলে আমরা সবাই তাকে বরণ করে নেব।

তিনি বলেন, আমাদের সবার দাবি-দাওয়া শিক্ষামন্ত্রীর কাছে তুলে ধরা হবে। মন্ত্রী যদি আমাদের দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দেন, তবে আমরা নিজেরা আলোচনা করে সাময়িক সময়ের জন্য আন্দোলন স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে। তবে দৃশ্যমান বাস্তবায়ন ছাড়া আমরা ক্লাসে ফিরে যাব না।

এডুকেশন বাংলা/একে

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর