সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯ ৪:৩৩ এএম


বারে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ চান ৯ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৫:২৬, ৭ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৬:৫৩, ৭ অক্টোবর ২০১৯

হাইকোর্টের রায় ও ইউজিসির নিয়ম অমান্য করে কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগে অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করিয়েছে। ফলে এই অতিরিক্ত শিক্ষার্থীরা বার কাউন্সিলে রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন না। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন ওসব বিশ্ববিদ্যালয়ের দেড় হাজারের মতো শিক্ষার্থী। তাদের ভবিষ্যৎও অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন ওসব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে হাইকোর্টের রায় অমান্য করে ও ইউজিসির বেধে দেয়া নির্দিষ্ট আসনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে। এখন এসব শিক্ষার্থী বার কাউন্সিলে রেজিস্ট্রেশন এবং ফরম পূরণ করতে পারছেন না। এ কারণে আজ নিয়মিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা ভুক্তভোগী। যাদের ক্যারিয়ার ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।

মানববন্ধনে জানানো হয়, ৮ থেকে ১০টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ভুক্তভোগী। এর মধ্যে রয়েছে- প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়, ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়, সাউথ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়, স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয, ডেফোডিল ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয় এবং আশা বিশ্ববিদ্যালয়।

শিক্ষার্থীদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ভর্তির সময় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। শিক্ষার্থীরা সম্পূর্ণ নির্দোষ। এমতাবস্থায় ভবিষ্যৎ নিয়ে চরম শঙ্কায় থাকা ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি দুর্নীতি যথাযথ বিচার চান।

শিক্ষার্থীরা উচ্চ আদালতের কাছে বলেন, যেহেতু তারা সম্পূর্ণ নির্দোষ সেহেতু তাদের রেজিস্ট্রেশন করতে দেয়ার জন্য উচ্চ আদালত মানবিকভাবে সদয় হবেন।

এডুকেশন বাংলা/একে

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর