সোমবার ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:১৪ পিএম


বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনিশ্চয়তায় ভর্তি পরীক্ষা

ববি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৮:৫২, ২ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ০৯:১০, ২ অক্টোবর ২০১৯

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) আগামী ১৮ ও ১৯ অক্টোবর পূর্বনির্ধারিত ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। একটানা চার মাস উপাচার্য নেই।  এতে একাডেমিক কাউন্সিল, অর্থ কমিটি ও সিন্ডিকেটের সভাও হচ্ছে না। চলতি বছরের ২৫ জুন থেকে উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান। ৭ অক্টোবর শেষ হচ্ছে তার চার বছরের মেয়াদ। রেজিস্ট্রারের পদও শূন্য। ফলে দেখা দিয়েছে এ অনিশ্চয়তা।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদায়ী ভিসি অধ্যাপক ড. এস এম ইমামুল হক চলতি বছরের ২৬ মার্চ ববির শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে কটূক্তি করলে তার অপসারণের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়। পরে ২৬ মে পর্যন্ত বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়া হয়। ২৭ মে তার মেয়াদ শেষ হয়। এ অবস্থায় প্রায় এক মাস উপাচার্যের পদ শূন্য থাকার পর ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মাহবুব হাসানকে ২৫ জুন থেকে উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) বরিশালের সভাপতি অধ্যাপক শাহ সাজেদা বলেন, উপাচার্য না থাকায় রসাতলে যাচ্ছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়। কোনো কিছুর ওপর নিয়ন্ত্রণ নেই রুটিন ভিসির। পূর্ণাঙ্গ উপাচার্য ছাড়া ববির ভাবমূর্তি রক্ষা করা সম্ভব হবে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য বরিশাল শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ইউনুস বলেন, গত জুন মাস থেকে ববি অভিভাবকহীন। ওই সময় থেকে সিন্ডিকেটের সভা হয় না। আসন্ন ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। তাই ববিতে পূর্ণাঙ্গ ভিসি প্রয়োজন।

সার্বিক বিষয়ে ববির রুটিন ভিসি অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান বলেন,  সবকিছু স্বাভাবিক গতিতে চলছে। ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা রয়েছে।  বিষয়টি সংশ্নিষ্ট ঊর্ধ্বতন মহলে অবহিত করা হয়েছে। 

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর