মঙ্গলবার ০২ জুন, ২০২০ ১৮:২২ পিএম


প্রশ্নফাঁসে বেসরকারি কলেজশিক্ষকের এমপিও বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৯:১৪, ২৭ মার্চ ২০১৮   আপডেট: ০৯:২৬, ২৮ মার্চ ২০১৮

এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস রোধে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এতে শিক্ষার্থীর পাশাপাশি শিক্ষকদেরও শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে।

২ এপ্রিল থেকে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হবে। পরীক্ষা সুষ্ঠু ও করতে রোববার বিকালে জাতীয় মনিটরিং এবং আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, প্রশ্নফাঁস রোধে কয়েক দফা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এর সঙ্গে কেউ জড়িত প্রমাণ পাওয়া গেলে কোনোভাবেই তাকে রেহাই দেয়া হবে না।

মন্ত্রণালয়ের নেয়া পদক্ষেপের মধ্যে আছে- প্রশ্নফাঁস এবং নকলে সহায়তার দায়ে চিহ্নিত শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করা হবে। এছাড়া বেসরকারি কলেজশিক্ষকের এমপিও বাতিলসহ চাকরিচ্যুত করা হবে।

চাকরিচ্যুতির জন্য সংশ্লিষ্ট কলেজ-মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটিকে বলা হবে। তারা ব্যবস্থা না নিলে কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি গঠন করা হবে। এরপর সেই কমিটির মাধ্যমে চাকরিচ্যুতি নিশ্চিত করা হবে।

দুইয়ের অধিক সেট প্রশ্ন ছাপানো হয়েছে। প্রত্যেকটি সেটই কেন্দ্রে পাঠানো হবে। তবে কোন সেটে পরীক্ষা হবে তা পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে কেন্দ্রীয়ভাবে লটারির মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে।

এখন থেকে প্রশ্নপত্র দুই প্যাকেটে যাবে। এর মধ্যে ভেতরের প্যাকেট থাকবে সিলগালা। আর বাইরের প্যাকেট থাকবে বিশেষ সিকিউরিটি কোডের টেপ লাগানো। ট্রেজারি থেকে বের করার পর কেন্দ্রে পৌঁছানো পর্যন্ত প্রশ্নপত্রের সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।

এসএসসির মতো এইচএসসিতেও পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে হলে প্রবেশ করতে হবে।

পরীক্ষাকালীন বিকাশ, রকেটসহ মোবাইল ব্যাংকিং কঠোর নজরদারিতে থাকবে। ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও থাকবে নজরদারিতে।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর