শুক্রবার ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:১৭ পিএম


প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির সংখ্যা ও হার বৃদ্ধির প্রস্তাব

প্রকাশিত: ১২:০২, ১৪ জুন ২০১৯   আপডেট: ১২:০৫, ১৪ জুন ২০১৯

২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সামাজিক সুরক্ষা খাতের আওতা বাড়ানো হয়েছে।  বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বাজেট পেশ করা হয়।

প্রতিবন্ধী ছাত্রছাত্রীদের উপবৃত্তির সংখ্যা ৯০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ জন করা হয়েছে। উপবৃত্তির হার প্রাথমিক স্তরে ৭০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৫০ টাকা, মাধ্যমিক স্তরে ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০০ টাকা, উচ্চমাধ্যমিক স্তরে ৮৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯০০ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সম্মানী ভাতা ১০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১২ হাজার টাকা করা হয়েছে।

বয়স্ক ভাতা গ্রহণকারীর সংখ্যা ৪০ লাখ থেকে বাড়িয়ে ৪৪ লাখ করার প্রস্তাব হয়েছে।

বিধবা ও স্বামীনিগৃহীতা নারী ভাতা গ্রহণকারীর সংখ্যা ১৪ লাখ থেকে বাড়িয়ে ১৭ লাখ করার প্রস্তাব হয়েছে।

অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা গ্রহণকারীর সংখ্যা ১০ লাখ থেকে বাড়িয়ে ১৫ দশমিক ৪৫ লাখ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

হিজড়া উপকারভোগীর সংখ্যা ৬ হাজার জন করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এ ছাড়া বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠী উপকারভোগীর সংখ্যা ৬৪ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৮৪ হাজার করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিভিন্ন অসুখ ও জন্মগতভাবে অসুস্থ আর্থিক উপকারভোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৩০ হাজার জন করা হয়েছে।

দরিদ্র মা যাঁরা মাতৃত্বকালীন ভাতা পান, সে সংখ্যাও বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর