বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৫৭ পিএম


প্রকল্পের অনিয়মের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করলেন শিক্ষাসচিব

প্রকাশিত: ২২:৩৯, ৩ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ১১:১০, ৪ জুলাই ২০১৯

শিক্ষামন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের অনিয়ম ও দুর্নীতি ক্ষুদ্ধ হয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং শিক্ষাসচিব সোহরাব হোসেন। গতকাল বুধবার প্রকল্পের মূল্যায়ন সংক্রান্ত অনুষ্ঠানে গিয়ে তারা এ ক্ষোভের কথা জানান।

শিক্ষাসচিব বলেন, শিক্ষার অনেকগুলো প্রকল্পে অনিয়ম দুর্নীতি হয়েছে তা আমরা ধরেছি এবং সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছি। তিনি বলেন, নিষেধ থাকা স্বত্ত্বেও একজন প্রকল্প পরিচালক বিল পরিশোধ করেছেন। তাকে বলা হয়েছিল ঠিকাদারের কাছ থেকে মালামাল ঠিকমতো বুঝে পেয়েছে কিনা, কার্যকর আছে কিনা তার পর যেন তিনি বিল পরিশোধ করেন। কিন্তু তিনি তা না করেই বিল পরিশোধ করেছেন।  

সোহবার হোসাইন বলেন, প্রকল্প পরিচালক যে না বুঝে করেন তা নয়। তারা বুঝে শুনেই অনিয়ম দুর্নীতি করছেন। এসব তথ্য প্রমান আমার কাছে আছে। তিনি অভ্যন্তরীন অডিট করার কথা বলেন।

সব ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা বজায় রাখার তাগিদ দিয়ে সচিব বলেন, আমাদের সব বিষয়ে স্বচ্ছ হওয়া উচিত। কোন বিষয় বাধা থাকলে শিক্ষামন্ত্রী, প্রধান মন্ত্রী আছেন। তা না করে আইনের বাইরে গিয়ে জোর করে করা ঠিক নয়।

বুধবার শিক্ষার ১৫ প্রকল্প নিয়ে মনিরটিং রিপোট প্রকাশ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। রাজধানীর নায়েমে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।

মনিটরিং রিপোর্টে শুধুই সংখ্যাতাত্বিক বিশ্লেষণ করা হয়েছে। অন্য কোন বিষয় তুলে ধরা হয়নি। এ বিষয়ে শিক্ষাসচিব বলেন, পরিবীক্ষনে প্রকল্পের এসব অব্যবস্থাপনা অনিয়ম উঠে না আসে তাহলে এভাবে মনিটরিং করে কোন লাভ নেই। এগুলো শুধুই আনুষ্ঠানিকতা। বছরে একবার প্রকাশ করা হবে। কয়েকজন ঢাকায় থাকার সুযোগ পাবে । রিপোর্টে তা তুলে ধরা না হলে সব চাপা পড়ে যাবে বলে তিনি আশংকা করেন।

তিনি আরো বলেন, মনিটরিং হতে হবে নিখুত। শুধু টাকার খরচের হিসাব তুলে ধরলেই হবে না। এই টাকা খরচের ক্ষেত্রে সকল নিয়ম কানুন মতো হয়েছে তাও তুলে ধরতে হবে। যথাসময়ে হয়েছে কিনা। নির্দিষ্ট সময়ে প্রকল্প শেষ হলে নানা সুবিধার কথা তুলে ধরেন সচিব। এদের অনিয়মের চিত্র তুলে ধরা হলে যারা অনিয়মের সাথে যুক্ত থাকে তাদের চিন্তা করতে হবে।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর