বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ৪:২১ এএম


পরিত্যক্ত কোয়ার্টারেই চলছে নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজের ক্লাস

শ্যামলেন্দু পাল, নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ১১:৩৩, ২৪ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১১:৪০, ২৪ নভেম্বর ২০১৯

সদর হাসপাতালের কোয়ার্টার। এখানেই চলছে নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজের ক্লাস

সদর হাসপাতালের কোয়ার্টার। এখানেই চলছে নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজের ক্লাস

নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজ চালুর এক বছর হতে চললো। কিন্তু এখন পর্যন্ত কলেজের নিজস্ব কোনো অবকাঠামো না থাকায় আগামী বছরেই শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রমে যেমন সমস্যা হবে তেমনি শিক্ষার্থীদের আবাসন সমস্যাও দেখা দিবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

কলেজের অধ্যক্ষ ডা. সাদিকুল আজম বলেছেন, সমস্যা সমাধানে তাদের আপ্রাণ চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। কলেজ ভবন এবং আবাসনের জন্য নেত্রকোনা সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের মৌজে বালি গ্রামে এরই মধ্যে ৫০ একর জমি অধিগ্রহণের জন্য প্রাক্কলন তৈরি করা হচ্ছে। তবে এটা বাস্তবায়নে এখনো অনেক দেরি হওয়ার কারণে হাসপাতালের ভিতর কলেজসংলগ্ন যে জায়গা রয়েছে, সেখানে আপত্কালীন একটি পাকা টিনশেড ঘর নির্মাণ করে দিলে এই সমস্যার আপাতত সমাধান হবে বলে জানা গেছে।

এদিকে মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীদের হাতে-কলমে শিক্ষার সুবিধার জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালের জন্য ২৫০ বেডের হাসপাতালের অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শুরু হলেও তা শেষ হতে এখনো কয়েক মাস লেগে যাবে বলে কর্তৃপক্ষ জানায়।

নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজে প্রথম বর্ষের ক্লাশ চলতি বছর জানুয়ারি থেকে ৫০ জন ছাত্রছাত্রী নিয়ে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের পরিত্যক্ত ডক্টরস কোয়ার্টারে শুরু হয়। এ বছর আরো ৫০ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ১০০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে চলছে মেডিক্যাল কলেজ।

জানা গেছে, ২০২০ সালের মে মাসে যখন শিক্ষার্থীদের প্রথম প্রফেশনাল পরীক্ষা শেষ হবে এবং তাদের পাশের পর তখন এই শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় বর্ষে লেখাপড়ার দারুণ ব্যাঘাত ঘটবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

কলেজের অধ্যক্ষ সাদিকুল আজম বলেন, নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালকে ২৫০ বেডের হাসপাতালে রূপান্তরের কাজ শুরু হওয়ায় তারা আশান্বিত। কিন্তু আগামী ছয় মাসের মধ্যে অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শেষ না হলে তখন সমস্য দেখা দিবে। অবশ্য এই ব্যাপারে নেত্রকোনার সংসদ সদস্য এবং মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু এমপি প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিচ্ছেন বলে জানান।

এই ব্যাপারে নেত্রকোনার সিভিল সার্জন ডা. তাজুল ইসলাম বলেন, নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজের জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েকটি বিল্ডিং দিয়েছে, প্রয়োজনে আরো দেওয়া হবে। কোনো সমস্যা হবে না।

নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম বলেন, মেডিক্যাল কলেজ নির্মাণের জন্য নেত্রকোনা সদর উপজেলার মৌজে বালি নামক স্থানে ৫০ একর জমি দেখা হয়েছে এবং জমি অধিগ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করে তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে পাঠানো হয়েছে।

মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও নেত্রকোনা সদরের এমপি আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, মেডিক্যাল কলেজের অবকাঠামো নির্মাণের জন্য সরকার সকল রকম ব্যবস্থা নিয়েছেন এবং অচিরেই সেই কার্যক্রম শুরু হবে।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর