মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:০৮ পিএম


নীতিমালার আগেই বেসরকারি স্কুলে ভর্তি শুরু, মাউশির হুঁশিয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০১:০১, ৮ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৯:২১, ৮ নভেম্বর ২০১৯

ভর্তি নীতিমালা চূড়ান্ত হওয়ার আগেই রাজধানী ঢাকার শীর্ষমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। কোনো প্রতিষ্ঠানে আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে, আবার কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান আবেদন শুরুর তারিখ ঘোষণা করে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এ বছর ভর্তি কার্যক্রম শুরুর আগে অনুমোদিত আসন সংখ্যা প্রকাশ করতে বলা হয়েছে। অথচ নীতিমালা জারির আগেই ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে মাউশির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যারা আইন অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্র জানায়, চলতি সপ্তাহে ‘বেসরকারি স্কুল ভর্তি নীতিমালা-২০২০’ শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশ করার কথা রয়েছে। ইতোমধ্যে খসড়া নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ নীতিমালায় তিন ধরনের পরিবর্তন আনা হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে অনুমোদিত আসনের অতিরিক্ত ভর্তি না করাতে বেসরকারি স্কুলে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আগে মোট আসন সংখ্যা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরে (মাউশি) পাঠাতে হবে। সেজন্য মাউশি থেকে তালিকা পাঠাতে নির্দেশনা দিতে বলা হবে। ভর্তি কার্যক্রম শেষে সেই তালিকা যাচাই-বাছাই করা হবে। গলাকাটা টিউশন ফির লাগাম টেনে ধরতে সরকারের ঘোষিত নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত আদায় যেন না করতে পারে, সেজন্য তিন ধরনের কমিটি গঠন করা হবে। উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে এ কমিটি গঠন করা হবে।

আরো পড়ুন: বরাদ্দ পেলেও মেরামত হয় না বিদ্যালয় ভবন

এদের মধ্যে আবার উপকমিটি গঠন করা হবে। তারা বিষয়গুলো মনিটরিং করবে। পাশাপাশি গলাকাটা টিউশন ফি বন্ধে আলাদা নীতিমালা তৈরির কাজ শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। এছাড়া সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বদলির ক্ষেত্রে আন্তঃউপজেলা বদলির বিষয়টি নতুনভাবে যুক্ত করা হয়েছে। যেটি আগে জেলা পর্যায়ে বদলির বিধান ছিল। বর্তমানে এখন সেটি উপজেলা পর্যায়ে স্কুল বদলি নীতিমালায় যুক্ত করা হয়েছে।

জানা গেছে, ভর্তি নীতিমালা প্রকাশ করার আগেই রাজধানীর শীর্ষমানের বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ভর্তি কার্যক্রম শুরু করেছে। নির্ধারিত আসন ঘোষণা না করে আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান আবেদন শুরুর তারিখ ঘোষণা করে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

বেসরকারি হাইস্কুলে ভর্তির নীতিমালা অনুযায়ী, প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির হতে হলে কমপক্ষে ছয় বছর বয়স হতে হবে। তবে এর কম বয়সীদেরও বিভিন্ন স্কুলের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে ভর্তি করা হয়। ইংলিশ মিডিয়াম ও কিন্টারগার্টেনে প্লে বা নার্সারি শ্রেণিতে ভর্তি নেয়া হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ প্রফেসর ফওজিয়া জানান, গত ২৯ অক্টোবর থেকে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তিতে অনলাইনে আবেদন নেয়া শুরু হয়েছে। আগামী ১২ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

আজ (বুধবার) বিকেলে রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বলেন, ২০২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। মতিঝিল, বনশ্রী, মুগদা শাখায় বাংলা মাধ্যম ও ইংরেজি ভার্সনে শিক্ষার্থী ভর্তিতে আগামী ৯ নভেম্বর থেকে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম চলবে। পরবর্তীতে প্রথম শ্রেণির ভর্তি লটারি ও ভর্তি পরীক্ষার সময় ঘোষণা করা হবে।

রাজধানীর উদায়ন উচ্চবিদ্যালয়ে ২৩ অক্টোবর শেষ হয়েছে অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম। প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ড. উম্মে সালমা বেগম  বলেন, ‘আমরা শিশু শ্রেণিতে শিক্ষার্থীর এন্ট্রি পয়েন্ট করেছি। এবার কেজি স্তর থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা মাধ্যমে এবং কোনো কোনো শ্রেণিতে ইংরেজি ভার্সনে ভর্তি নেয়া হবে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে, মিরপুর বাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বশিরউদ্দিন স্কুল, ধানমন্ডি আইডিয়াল, মোহাম্মদ আইডিয়ালসহ অনেকগুলো প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) পরিচালক (বিদ্যালয়) অধ্যাপক আবদুল মান্নান  বলেন, ‘বেসরকারি স্কুলে ভর্তির খসড়া নীতিমাল চূড়ান্ত হয়েছে। খুব শিগগিরই এটি জারি করা হবে। নীতিমালার আগে কেউ ভর্তি কার্যক্রম শুরু করতে পারবে না। ভর্তি কার্যক্রম শুরু করার আগে শূন্য আসনের তালিকা মাউশির কাছে দিতে হবে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর