মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৪১ পিএম


নদী গর্ভে ২৬৯ জন শিক্ষার্থীর প্রিয় বিদ্যালয়

রাজশাহী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:৫৫, ১০ অক্টোবর ২০১৯  

এক রাতে নদী গর্ভে বিলীন হলো ২৬৯ জন শিক্ষার্থীর প্রিয় বিদ্যালয়। ফলে শঙ্কা তৈরি হয়েছে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া নিয়ে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বিদ্যালয়টি। গতকাল বুধবার (০৯ অক্টোবর) দিবাগত রাতে পদ্মা নদীতে ভাঙ্গনে রাজশাহীর গোদাগাড়ীর চর বয়ারমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়।

গোদাগাড়ী উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৯ সালে স্থাপিত হয়। ২০০০-০১ অর্থ বছরে ১৪ লাখ টাকা ব্যয়ে বিলীন হওয়া পাকা ভবনটি নির্মাণ করা হয়। পরে ২০১৫ সালে প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি পিইডিপি-৩ এর আওতায় প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে উর্দ্ধমুখী তিন তলা সম্প্রসারণ করা হয়। তবে এই ভবনটিও ঝুকির মধ্যে রয়েছে, যে কোন সময় নদীর ভাঙ্গনে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক বজলুর রহমান জানান ,এই বিদ্যালয়ে ইউনিয়নের হঠাৎপাড়া, হবিপাড়া, আমিনপাড়া, চর বয়ারমারী, আদর্শগ্রামের ২৬৯ জন শিক্ষার্থী লেখা পড়া করে। দুই ভবনে ৬টি শ্রেণি কক্ষর মধ্যে ৩টি কক্ষ নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেলো।

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসার মমতাজ মহল জানান, বিদ্যালয়টি রক্ষায় ব্যবস্থাগ্রহণ করার উপায় ছিল না। কারণ বিদ্যালয়টি পদ্মা তীরের নিকটবর্তী। পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে একাধিক বার পরিদর্শন করে বিদ্যালয়টি রক্ষার সম্ভাব হয়নি।

গোদাগাড়ী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হক জানান, বিদ্যালয় ভবনটি নদীতে বিলীনের বিষটি শুনেছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাগ্রহনে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। অস্থায়ীভাবে শিক্ষার্থীদের ক্লাসের ব্যবস্থা করা হবে।"

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর