রবিবার ০৯ আগস্ট, ২০২০ ২২:২৯ পিএম


নতুন এমপিও: আবেদনে ভোগান্তি , সময় একদিন বাড়লো

প্রকাশিত: ১১:১৪, ৫ মে ২০২০   আপডেট: ১১:১৫, ৫ মে ২০২০

নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম সম্পন্নে প্রতিষ্ঠান প্রধানরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন।
 
শিক্ষকরা অভিযোগে বলেছেন, নন এমপিওভুক্ত শিক্ষক কর্মচারীদের অনলাইনে এমপিওর আবেদনের শেষ সময় ৩ ও ৪ মে নির্ধারণ করা হয়েছে। অথচ আবেদন প্রক্রিয়ায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) সার্ভারে অনলাইনে আবেদন সম্পন্ন করা সম্ভব হচ্ছে না। সার্ভার সমস্যার জন্য এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরম ভোগান্তির শিকার এমপিওভুক্তির জন্য অপেক্ষমাণ শিক্ষক-কর্মচারীরা। বিভিন্ন জেলা থেকে ফোন করে এমন ভোগান্তির কথা জানান শিক্ষকরা।
 
বিষয়টি আমলে নিয়ে শিক্ষক-কর্মচারীদের অনলাইনে আবেদন কার্যক্রমের সময়সীমা বাড়িয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।
 
মাউশির উপ-পরিচালক রুহুল মমিন জানিয়েছেন, নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের আবেদনের সমসসীমা আগামী ৪ মে পর্যন্ত দেয়া ছিল। কেউ কেউ আবেদন সম্পন্ন করতে পারেনি বলে শোনা যাচ্ছে, এদিকে বিবেচনা করে আবেদন প্রক্রিয়ার সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামী ৫ মে পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।
মাউশির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আমরা মে মাসে ঈদের আগে শিক্ষকদের নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বেতন-ভাতা দিতে চাই। এজন্য আবেদন প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে খুব সংক্ষিপ্ত সময় দেয়া হয়েছে। শিক্ষকদের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে আরও একদিন সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। অন্যান্য প্রক্রিয়াতেও একদিন করে সময় বৃদ্ধি করা হবে বলেও জানান তিনি।
বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি ও এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরামের মুখপাত্র মো. নজরুল ইসলাম রনি ও বাশিসের মহাসচিব মো. মেজবাহুল ইসলাম প্রিন্স আবেদন করতে গিয়ে সার্ভারের ভোগান্তির বিষয়টি লিখিতভাবে অভিযোগ করেন।
 
তারা জানান, মাউশি থেকে আবেদন করার দিক নির্দেশনা দেয়া হলেও সেভাবে আবেদন সম্পন্ন করা সম্ভব হচ্ছে না ।একই সঙ্গে নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা এমপিওভুক্তির আবেদনের সময় বৃদ্ধি করতে মাউশির ডিজির দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই হাজার ৭৩০টি নন এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার নির্দেশ দেয়। দীর্ঘ নয় চূড়ান্ত পর এসব প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত এমপিওভুক্তি পেল। এখন শিক্ষকদেও এমপিওভুক্তির কার্যক্রম শুরু হলো।

 

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর