মঙ্গলবার ১৪ জুলাই, ২০২০ ৫:৪৫ এএম


তুরস্কে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ ইবির শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থীর

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:০১, ৩ মার্চ ২০২০  

তুরস্কের তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পাচ্ছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ৫৫ জন শিক্ষক এবং ৮৯ জন শিক্ষার্থী রয়েছেন। তুরস্কের মওলানা এক্সেঞ্জ প্রোগ্রাম প্রটোকলের আওতায় এ উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ পাবেন তারা।

সোমবার বেলা ১২ টায় ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় এ তথ্যটি জানানো হয়।

সভায় ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের পরিচালক অধ্যাপক ড. শাহাদাৎ হোসেন আজাদের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী। এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা। এছাড়াও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত সেখানে ছিলেন।

জানা যায়, তুরস্কের ইগদির, কাফকাস ও চানকিরি কারাকিতিন বিশ্ববিদ্য্যালয়ের সাথে ইসলামী বিশবিদ্যালয়ের দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী বিশবিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের মোট ১৪৪ জন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ পাবেন। প্রাথমিকভাবে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা তাদের বিভাগীয় সভাপতির মাধ্যমে মনোনীত হয়ে আবেদন করতে পারবেন। পরে চূড়ান্তভাবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের মনোনীত করবেন। এতে শিক্ষার্থীরা ৫ মাস এবং শিক্ষকরা ১৪ দিনের গবেষণার সুযোগ পাবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে একই নিয়মের আওতায় তুরস্কের ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরাও ইবিতে পড়ার সুযোগ পাবেন। উভয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার খরচ বহন করবেন মওলানা এক্সেঞ্জ প্রোগ্রাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, সারা পৃথিবীতে উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণার পদ্ধতিতে প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। তুরস্কের এই তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যমে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিকীকরণের পথে এক ধাপ এগিয়ে যাবে।

উল্লেখ্য, এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবসাইট (www.iu.ac.bd) ও প্রশাসন ভবনে অবস্থিত সংশ্লিষ্ট সেলের দফতর থেকে পাওয়া যাবে।
নেব” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কুমিল্লার চান্দিনায় জাতীয় ভোটার দিবস-২০২০ উদযাপিত হয়েছে। সারা দেশব্যাপী আয়োজনের অংশ হিসেবে চান্দিনা উপজেলা নির্বাচন অফিসের উদ্যোগে গতকাল (সোমবার) র্যালি, আলোচনা সভা, ভোটার তালিকা হালনাগাদ-২০১৯ এর চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশ, নতুন ভোটার অন্তর্ভুক্তি, বিশিষ্ট ব্যক্তিদের স্মার্ট কার্ড প্রদান, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রকাশিত স্মরণিকা প্রদানসহ নানাবিধ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আনন্দঘন পরিবেশে দিবসটি উদযাপিত হয়। সামগ্রিক আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও কুমিল্লা-৭ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্নেহাশীষ দাশের সভাপতিত্বে ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ আহসান হাবীবের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তপন বকসী। অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জহির মুন্সী ও সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মালেক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাফিয়া আক্তার, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ ফারুক ময়েদুজ্জামান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কানিজ আফরোজ, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা নাছিমা আক্তার, উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো.মাজহারুল ইসলাম, উপজেলা ব্যানবেইস সহকারী পোগ্রামার মো. ছালাউদ্দিন, উপজেলা আইসিটি সহকারী পোগ্রামার মোঃ তানভীরুল ইসলাম, সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নুরুন্নবী চান্দিনা পাইলট সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবু নোমান মো. সালেহ, চান্দিনা ডা. ফিরোজা পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. আলী আকবর এবং মার্তৃভূমি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক মোঃ বেলাল হোসাইন প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, “ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার সাথে মুক্তিযুদ্ধের রয়েছে সরাসরি সম্পর্ক। জাতির ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠায় আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।” তাই প্রত্যেক সচেতন নাগরিককে ভোট প্রদানের মাধ্যমে দেশ গড়ার অংশ নিয়ে গণতন্ত্রকে সমুন্নত রাখার আহ্বান জানান তাঁরা।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর