বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ১৩:৪০ পিএম


ঢাবি'র "ঘ" এবং "চ" ইউনিট বিষয়ক কিছু কথা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৯:২৩, ২০ জুলাই ২০১৯  

মানবিক এর কোনো ছাত্রের এইচএসসিতে যদি গণিত, পরিসংখ্যান ও অর্থনীতি এই তিনটার একটাও পড়া না থাকে তাহলে সে "ঘ" ইউনিটে পরীক্ষা দিয়ে প্রথম হলেও কোনো ফল হবে না, কারণ এতে সে কোনো সাবজেক্ট পাবেনা।

বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক— এইচএসসিতে গণিত থাকলে সে বিজ্ঞানের গণিত ও ব্যবসার শিক্ষা এর সকল সাবজেক্ট পাবে, আর এইচএসসিতে পরিসংখ্যান কিংবা অর্থনীতি থাকলে সে ব্যবসায় শিক্ষার সকল সাবজেক্ট পাবে।

আর একটা বিষয় হলো, `ঘ` ইউনিটে মানবিক এর ছাত্রদের জন্য মাত্র ৩৮টি সিট উন্মুক্ত থাকে।
যদিও `ঘ` ইউনিটে মানবিকের মোট সিট ৪৮টি, কিন্তু তাতে ১০টি সিট থাকে গণিত এ পড়ার জন্য। আর এজন্য শর্ত থাকে যে, মানবিক এর যে ছাত্র HSC তে উচ্চতর গণিত পড়েছে এবং `ঘ` ইউনিট এর ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলে সিরিয়ালে আছে সেই উক্ত সিটে ভর্তি হতে পারবে। এই শর্ত পূরণ হয় না; ফলে সেই সিটগুলো ফাঁকা থাকে আর তখন `ক` ইউনিটের ওয়েটিং এ থাকা সাইন্স এর ছাত্রদের দিয়ে তা পূরণ করা হয়।
তবে, এবার কয়েকটা সিট বাড়ানো হয়েছে, কিন্তু বাকিসব কাহিনি একই।

আর, "চ" ইউনিট এর বিষয়ে বলতে হয়— অতি উচ্চদক্ষতাসম্পন্ন না হলে ড্রয়িং এ পাশ করাই যায় না। আমি ঢাবি`র সব ইউনিটেই পাশ করেছিলাম। `চ` ইউনিট এর সাধারণ জ্ঞান অংশেও পাশ করেছিলাম কিন্তু অনেক ভালো এঁকেও ড্রইং এ পাশ করতে পারি নাই। আমার ছোট ভাইয়েরও একই ঘটনা ঘটেছিল। তাই এই কাজে খুবই এক্সপার্ট না হয়ে থাকলে এখানে সময় না দেওয়াই ভালো।

আমি যখন ২০১২ সালে "চ" ইউনিটে পরীক্ষা দেই তখন অংকন অংশের প্রশ্ন ছিল এই— ছাত্রদেরকে খালি ফ্লোরের উপর গ্রুপ গ্রুপ করে গোল করে বসিয়ে মাঝখানে একটা করে মৃৎপাত্রের ফুলদানি রেখেছিল। এই ফুলদানির গায়ে নকশী করে ফুল আঁকা ছিল। ফুলদানিটা আবার একটা বর্গাকার বেদীর উপরে ছিল। প্রশ্ন ছিল এই পুরো জিনিসটার ত্রিমাত্রিক (3D) ছবি আঁকতে হবে।

আমার ছোটভাই যখন ২০১৭ সালে পরীক্ষা দিয়েছিল তখন অংকন অংশের প্রশ্ন ছিল— প্রতিটা রুমে ব্লাকবোর্ডের সামনে একজন করে শ্রমিককে এনে দাঁড় করিয়ে রেখেছিল। প্রশ্ন ছিল তাকে দেখে দেখে সেই মানুষটার মুখের ছবি অংকন করতে হবে। আর এজন্য প্রতিটা রুমে কত থেকে কত রোল বসবে তা তো সিটপ্লান করাই ছিল। পরীক্ষা কমিটি কোন রুমে কাকে দাঁড় করানো হবে তা ঠিক করে তাদের ছবি তুলে তা ফাইল করে রেখেছিল যেন তা দেখে দেখে অংকন খাতা কাটা যায়।

অতএব, বুঝতেই পারছো বিষয়টা কতটা নিখুঁত দক্ষতার কাজ। তাই অংকনে খুবই সিদ্ধহস্ত না হয়ে থাকলে সেখানে সময় দিতে যেয়ো না।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর