সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২:০২ এএম


ঢাবি শিক্ষার্থীকে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া প্রশ্নে রুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:২৭, ২৩ আগস্ট ২০১৯  

রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ‘ভুল চিকিৎসায় বাম হাত অকেজো হওয়া’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান শামীমকে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই হাসপাতালে শামীমের দেহে অস্ত্রোপচারের সিডি ও চিকিৎসার সব রেকর্ড ৩০ দিনের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে বলা হয়েছে।

বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। রিট আবেদনকারী মেহেদী হাসান শামীমের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া, অ্যাডভোকেট রিপন কুমার বড়ুয়া ও ফুয়াদ হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর উস সাদিক।

ভুল চিকিৎসার বিষয়ে গত ১৮ এপ্রিল শামীম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিতে সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, রক্তনালির ব্রেন টিউমার (ইনসুলার ক্যাভারনোমা) হওয়ায় ২০১৮ সালের ১৪ অক্টোবর তিনি স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হলে ডা. কৃষ্ণা প্রভু দ্রুত অপারেশন করতে বলেন। তিনি জানান, দ্রুত অপারেশন না করলে স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে যেকোনো সময় আমি মারা যেতে পারি। অপারেশনের পসিবল রিস্ক ও পোস্ট অপারেটিভ সিম্পটম সম্পর্কে বারবার জিজ্ঞেস করলেও তিনি সব কিছু সচেতনভাবে এড়িয়ে যান। ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি ডাক্তারের পরামর্শে অপারেশন করা হয়। আমি আইসিইউতে থাকাকালে আমার অ্যাটেনডেন্টকেও (ছোট ভাই) শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানানো হয়নি।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর