রবিবার ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:৩৯ পিএম


ঢাবিসহ ৩ বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য নিয়োগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:২৭, ৩ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১১:৪১, ৪ নভেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ‌্যালয়সহ দেশের তিনটি  বিশ্ববিদ‌্যালয়ে নতুন উপাচার্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

রোবববার (৩ নভেম্বর) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে বিশ্ববিদ্যালয় ৩টির উপাচার্য নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ‌্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বর্তমান উপাচার্য ড. আখতারুজ্জামান (স্থায়ী), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ‌্যালয়ে নিয়োগ পেয়েছেন উপ উপাচার্য ড. শিরীন আখতার এবং বরিশাল বিশ্ববিদ‌্যালয়ে নিয়োগ পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের জ্যেষ্ঠ  শিক্ষক ড. মো. সাদেকুল আরেফীন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব নীলিমা আফরোজ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলরের অনুমোদনক্রমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ ১৯৭৩ এর আর্টিকেল ১১ (১) অনুযায়ী সিনেট কর্তৃক মনোনীত প্যানেল থেকে ড. মো. আখতারুজ্জামানকে উপাচার্য পদে নিম্নোক্ত শর্তে নিয়োগ করা হলো।

শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে- উপাচার্য হিসেবে তার নিয়োগের মেয়াদ চার বছর, তবে রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর প্রয়োজন মনে করলে এর আগেই নিয়োগ বাতিল করতে পারবেন, উপাচার্য পদে তার বর্তমান পদের সমপরিমাণ বেতন-ভাতাদি প্রাপ্য হবেন, তিনি বিধি অনুযায়ী পদসংশ্লিষ্ট অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে সার্বক্ষণিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান করবেন।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন হয়। এতে উপাচার্য পদে অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামানসহ তিনজন নির্বাচিত হন। নির্বাচনের পর উপাচার্য হওয়ার সম্ভাব্য ব্যক্তিদের নাম রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলরের কাছে পাঠানো হলে প্রায় তিন মাস পর এর অনুমোদন করেন রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর।

এর আগে ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় তাকে। ওই সময় তিনি উপ-উপাচার্যের দায়িত্বে ছিলেন। তৎকালীন উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিককে মেয়াদোত্তীর্ণ আখ্যা দিয়ে আখতারুজ্জামানকে অস্থায়ী নিয়োগ দেয়া হয়। প্রায় দুই বছর দুই মাস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি হিসেবে দায়িত্বপালন করেন তিনি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ পাওয়া উপাচার্য ড. শিরীন আখতার ১৯৭৩ সালে কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে শিরীণ আখতার ভর্তি হন চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে।সেখান থেকে ১৯৭৫ সালে তিনি এইচএসসি পাস করেন। ১৯৭৮ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে বিএ (সম্মান) সম্পন্ন করেন প্রফেসর শিরীণ।

১৯৮১ সালে একই বিভাগ থেকে এম এ ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর ১৯৯১ সালে ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তার গবেষণার বিষয় ছিলো- ‘বাংলাদেশের তিনজন ঔপন্যাসিক শওকত ওসমান, ওয়ালিউল্লাহ ও আবু ইসহাক’।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেওয়ার আগে বন্দরনগরীর এনায়েত বাজার মহিলা কলেজে প্রভাষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। ১৯৯৬ সালে প্রফেসর ড. শিরীণ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রভাষক পদে যোগ দেন।

২০১৬ সালের ২৮ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান শিরীণ আখতার। পরে উপাচার্যের পদ শূন্য হলে ভিসির চলতি দায়িত্ব পান তিনি।  

 

 

এডুকেশন বাংলা / এসআই

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর