সোমবার ২৫ মে, ২০২০ ১৯:৫৫ পিএম


টিভিতে পাঠদান:শুধু ভিডিও রেকর্ডিং করতেই ১৬ কোটি!

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:৪০, ৩০ মার্চ ২০২০  

করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত এ ছুটিতে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে টেলিভিশনে পাঠদানের সিদ্ধান্ত হয়। তবে টিভিতে পাঠদানের জন্য শুধু ভিডিও রেকর্ডিং করতেই লাগবে ১৬ কোটি টাকা। সংসদ টিভিতে পাঠদান সম্প্রচার করতে কোনো ব্যয় হবে না। এছাড়া রাজধানীর কয়েকটি নামকরা স্কুলের শিক্ষকরা দেশের এমন পরিস্থিতিতে নিজ দায়িত্বে ক্লাস রেকডিং করছেন। শুধু ভিডিও রেকর্ডিং করতেই এত বিশাল অঙ্কের বাজেট নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা।

ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠদানের ভিডিও রেকর্ডিংয়ের জন্য ১৬ কোটি টাকার বিশাল বাজেট দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। গত সপ্তাহে মন্ত্রণালয়ে এই বাজেট চাওয়া হয়েছে।

টিভিতে ক্লাস নেয়ার বিষয়টি দেখভাল করছেন মাউশির কলেজ ও প্রশাসন শাখার পরিচালক অধ্যাপক মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী। ১৬ কোটি টাকা কোন খাতে ব্যয় ধার্য করা হয়েছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান। কোন কোন খাতে অর্থ ব্যয় হবে তাও তিনি বলতে পারেন না বলে জানিয়েছেন। বাজেটের বিষয়টি মাউশির প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন শাখা করতে বলেছে জানান তিনি।

মাউশির পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ড. প্রবীর কুমার ভট্টাচার্য্যের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কিছু বলতে রাজি হননি। বিষয়টি নিয়ে মাউশির মহাপরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পরামর্শ দেন। তবে মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম ফারুকের মোবাইলে একাধিকবার ফোন করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, শিক্ষা অধিদফতরের সুযোগ সন্ধানীরা ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়সহ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্টুডিও ব্যবহার করছেন ভিডিও রেকর্ডিংয়ের জন্য। যদিও কথা ছিল রেকর্ডিংয়ের জন্য শুধু শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন ব্যানবেইসের স্টুডিও ব্যবহার করার। তাড়াতাড়ি করার অজুহাত দেখিয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নেয়া হয়েছে। অথচ ঢাকার কয়েকটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে উন্নতমানের স্টুডিও ছিল। তবুও দু’টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে সরকারের কাজে যুক্ত করছে শিক্ষা অধিদফতরের কিছু অসাধু কর্মকর্তা।

করোনাভাইরাসের কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় ‘সংসদ টেলিভিশনে’ ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত বিষয়ভিত্তিক শিক্ষাদান শুরু করার উদ্যোগ নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এটুআই প্রকল্পের সহায়তায় এই সম্প্রচার কাজটি বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছিল মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরকে। এই সুযোগে বিশাল বাজেট দিয়ে বসেছে অধিদফতরটি। টিভিতে সম্প্রচারের জন্য ক্লাসের ভিডিও ধারণেই ১৬ কোটি টাকার বাজেট চেয়েছে শিক্ষা অধিদফতর। এদিকে মন্ত্রীর নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও প্রস্তুতি শেষ না হওয়ায় ২৮ মার্চের পরিবর্তে সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস সম্প্রচার শুরু হচ্ছে ২৯ মার্চ থেকে। এজন্য রুটিনও প্রকাশ করেছে তারা।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলসহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ঘরে থেকে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর