সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ৬:৩৪ এএম


একাদশে ভর্তি

জোর করে কলেজে ভর্তি করালে বাতিল করবে বোর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:১৫, ৯ মে ২০১৮   আপডেট: ০৯:২৪, ১০ মে ২০১৮

জোর করে কোনো শিক্ষার্থীকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করালে তা বাতিল করে দেবে সংশ্লিষ্ট বোর্ড। তবে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে নিজ শিক্ষা বোর্ডে অভিযোগ করতে হবে। এর পর নতুন করে পছন্দের প্রতিষ্ঠানে আবেদনের সুযোগ পাবে ওই শিক্ষার্থী।

গত কয়েকবছর ধরে শিক্ষার্থীদের কৌশলে জোর করে ভর্তি করে কলেজগুলো। এর প্রেক্ষিতে ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক এ কথা বলেন।

বোর্ডের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানান, অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম চালু হওয়ায় অনেক কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি হবে নাÑ এ আশঙ্কা থেকেই জোর করে শিক্ষার্থীদের আবেদন করানোর চেষ্টা করা হয়।

ভর্তি কার্যক্রম শুরু হলে এ ধরনের অসংখ্য অভিযোগ আমাদের কাছে আসে। এ ধরনের আবেদন বাতিল করতে চাইলে সংক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী তার মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও প্রবেশপত্রসহ নিজ নিজ শিক্ষা বোর্ডের কলেজ শাখায় যোগাযোগ করলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বোর্ড চেয়ারম্যান জানান, দেশের সবকটি বোর্ডের অধীনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোয় একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি সম্পন্ন হওয়ার পরও অনেক আসন শূন্য থাকবে। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আসন সংকট থাকে না।

এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ১০৪। সব বোর্ডে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আসন রয়েছে ২০ লাখের বেশি। তবে সব বোর্ডের তথ্য হালনাগাদ করা হচ্ছে। ভর্তি শুরু হওয়ার আগে সঠিক পরিসংখ্যান পাওয়া যাবে।

দেখা গেছে, রাজধানীর কলেজগুলোয় আবেদনের শীর্ষে থাকে যথাক্রমে ঢাকা সিটি কলেজ, আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা কলেজ, উত্তরা রাজউক কলেজ, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ রাইফেলস পাবলিক স্কুল অ্যান্ডকলেজ এবং রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ। এসব প্রতিষ্ঠানের মতো অন্যরা যদি তাদের মান উন্নীত না করে, তবে তারা ধীরে ধীরে হারিয়ে যাবে। শিক্ষার্থীদের টানতে হলে লেখাপড়া, পরিবেশ সবকিছুর উন্নতি ঘটাতে হবে বলে মনে করেন বোর্ড কর্মকর্তারা। এ কারণে অনেক কলেজ ভর্তির পরও শিক্ষার্থীশূন্য থাকে বা কাক্সিক্ষত সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি করাতে পারে না।

আগামী ১৩ মে থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। ২৪ মে পর্যন্ত অনলাইনে এবং টেলিটক মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে পাঁচ থেকে ১০টি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির আবেদন করা যাবে। শিক্ষার্থীদের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভর্তি নিশ্চিত করতে হবে। অনলাইনে আবেদনের জন্য ১৫০ এবং মোবাইলে আবেদনে প্রতিটি কলেজের জন্য ১২০ টাকা ফি দিতে হবে। ভর্তি কার্যক্রম ২৭ জুন থেকে শুরু হয়ে ৩০ জুন শেষ হবে। ১ জুলাই থেকে ক্লাস শুরু হবে।

 

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর