বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ৬:০৪ এএম


জেনে নিন চিকিৎসকদের ডিগ্রী সম্পর্কে

এডুকেশন বাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:২২, ২০ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৩:২৭, ২০ ডিসেম্বর ২০১৯

চিকিৎসকদের সবথেকে বহুল ব্যাবহৃত ডিগ্রির নাম হচ্ছে MBBS.

যার পূর্ণরূপ-Bachelor of Medicine, Bachelor of Surgery,
ল্যাটিন ভাষায় Medicinae Baccalaureus Baccalaureus Chirurgiae

মূলত এটি চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি আন্ডার গ্র্যাজুয়েট কোর্স। বাংলাদেশ এবং দেশের বাইরের অনুমোদনকৃত পাঁচ বছরের সফল শিক্ষাজীবন শেষ করে নামের আগে ডাক্তার (Dr) শব্দটি যুক্ত হয়। মূলত চিকিৎসা বিজ্ঞানের সব বেসিক বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করা হয়। বাংলাদেশসহ যেসব দেশ ব্রিটিশ উপনিবেশ ছিল সেসব দেশে বহুল ব্যবহৃত এই ডিগ্রি। পাঁচ বছরে তিনটি প্রফেশনাল পরীক্ষায় বিভক্ত। এরমধ্যে প্রথম প্রফেশনাল পরীক্ষাতে এ্যানাটমী, ফিজিওলজি, বায়োকেমিস্ট্রি পড়তে হয়। দ্বিতীয় প্রফেশনাল পরীক্ষা তে প্যাথলজি, মাইক্রোবায়োলজি, ফার্মাকোলজি, ফরেনসিক মেডিসিন, ও কমিউনিটি মেডিসিন পড়তে হয়। তৃতীয় বা ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষাতে মেডিসিন, সার্জারি, গাইনি ও অবস্ট্রেট্রিকস বিষয় পড়তে হয়। এইসব বিষয়ে সফলভাবে উত্তীর্ণ হওয়ার পরে এক বছরের বাস্তব প্রশিক্ষণ বা ইন্টার্নশিপ করতে হয়। এরপরে চিকিৎসা সেবা শুরু হয়।

Bachelor of Dental Surgery (BDS)। এটি একটি ডেন্টাল সার্জারী একটি ব্যাচেলর কোর্স। সহজভাবে যাকে দন্ত বিশেষজ্ঞ বলা হয়।

Doctor of Philosophy (PhD, Ph.D / DPhil
এদের নাম এর আগেও ডক্টর (Dr) বসে। এরা কোন বিশেষ টপিকসের উপরে ডক্টরেট ডিগ্রী লাভ করে থাকে।

এমবিবিএস পাশ করার পরে অনেক চিকিৎসক স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে থাকেন।
তার মধ্যে রয়েছে, (FCPS ) Fellow of College of Physicians & Surgeons.
এটি বাংলাদেশ কলেজ অফ ফিজিশিয়ান এবং সার্জন এর অধীনে একটি পোস্ট গ্রাজুয়েশন কোর্স বা উচ্চতর ডিগ্রী।

(FRCS) Fellowship of the Royal Colleges of Surgeons.
এটি যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডের চিকিৎসা বিষয়ে পোস্ট গ্রাজুয়েশন কোর্স।

Doctor of Medicine (MD) এটি আমেরিকার চিকিৎসকদের ক্ষেত্রে বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে।
Doctor of Osteopathic Medicine
মাস্টার্স অফ সার্জন (MS)
এগুলি পোস্ট গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি।

(PGT) Physicians General Training
এটি মূলত চিকিৎসকদের সাথে থেকে বাস্তব প্রশিক্ষণ।

Master of Public Health (MPH) অনেক চিকিৎসক ও বিজ্ঞানের ছাত্ররা এই ডিগ্রী নিয়ে থাকেন।

এছাড়া অনেক চিকিৎসক উচ্চতর ডিগ্রি নেয়ার ক্ষেত্রে চিকিৎসাবিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখাতে বিশেষজ্ঞ হয়ে থাকেন। যেমন,
Medicine-মেডিসিন বিশেষজ্ঞ,
Surgery-সার্জারি বিশেষজ্ঞ,
Paediatrics-শিশু বিশেষজ্ঞ,
Obstetrics and gynaecology-প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ, Cardiology-হৃদ রোগ বা হার্টের রোগ বিশেষজ্ঞ,
(ENT) {ears, nose, and throat}কান, নাক এবং গলা বিশেষজ্ঞ, Ophthalmology-চক্ষু বিশেষজ্ঞ ,
Psychiatry-মনোরোগ বিশেষজ্ঞ,
Neurology স্নায়ুবিজ্ঞান, বা ব্রেইন বিশেষজ্ঞ,
Osteopathic-হাড় বিশেষজ্ঞ,
পালমোনোলজি বা ফুসফুস / বক্ষ বিশেষজ্ঞ,
ইউরোলজি বা মূত্রব্যবস্থা বিশেষজ্ঞ, , ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ,
লিভার ও পরিপাকতন্ত্র/গ্যাস্ট্রোলজি রোগ বিশেষজ্ঞ,
Dermatology & Venereology চর্মরোগ ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ।

এছাড়াও রয়েছে, ডেন্টাল সার্জারি, ফরেনসিক মেডিসিন, ফ্যামিলি মেডিসিন এবং ক্লিনিকাল প্যাথলজি, প্লাস্টিক সার্জারি, স্পাইন সার্জারি, ভাসকুলার সার্জারি, নিউরো সার্জারি, অর্থোপেডিক সার্জারি, থিরাটিক সার্জারি, ওরাল ও ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি।

উল্লেখ্য যে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল ( বিএমডিসি) কর্তৃক অনুমোদিত স্বীকৃত ডিগ্রিধারীরাই কেবল নামের আগে ডাক্তার/Dr শব্দটি ব্যবহার করতে পারবে।


সৌজন্যে: অক্সিজেন শিক্ষা পরিবার
মেডিকেল ও বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির প্রাইভেট প্রোগ্রাম

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর