মঙ্গলবার ০৭ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:২৮ পিএম


জাতীয়করণ আদায়ে ঐক্য চাই

প্রকাশিত: ০০:১৩, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

আমরা যারা বেসরকারি শিক্ষক তারা প্রায়শঃই বলে থাকি সরকার আমাদের প্রতি আন্তরিক নয়। আমরা সবসময়ই সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর সমালোচনা করি। এমনকি সচিব আমলাদেরও বাদ দেইনা। আমরাতো একবারও নিজের দিকে চেয়ে দেখিনা যে আমরাই আমাদের বিরুদ্ধে কুমির আনার খাল কাটছি প্রতিনিয়ত। 
 
একটি সংগঠন বারবার জাতীয়করণের দাবিতে অগ্রসর হলে আরও ১০ টি সংগঠনের ব্যানারে হাজারো শিক্ষক উঠেপড়ে লেগে যান সমালোচনায়। কোথায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিজেদের অধিকার আদায়ে জাতীয়করণের পক্ষের শক্তিকে সমর্থন দিবেন, আন্দোলনে স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসবেন, প্রয়োজনে কয়েকটি বৃহৎ সংগঠনকে একত্রিত করবেন। কিন্তু, পরিতাপের বিষয়, স্বনামধন্য বিখ্যাত শিক্ষকগণ বারবারই সাধারণ শিক্ষকদের প্রাণের দাবি জাতীয়করণ আন্দোলনকে বানচালের গভীর চক্রান্তে লিপ্ত হন। আপনারা কি জাতীয়করণ বিরোধী স্টেটাস বা কমেন্টস করলে ঘুষ পান কিনা এমন প্রশ্ন আমাদের মতো সাধারণ শিক্ষকদের মনে। এখনতো সন্দেহ হচ্ছে আপনারাই দালালদের উস্কে দিচ্ছেন, ১০% কর্তনে সহায়তা করেছেন এবং আন্দোলন ঘনিয়ে আসলে শিক্ষকগণ যাতে যোগ না দেয় তারজন্য অপবাদ ও বিভ্রান্তিকর স্টেটাস দিচ্ছেন। 
 
সারা বিশ্বে যেখানে শিক্ষকরা বিশেষ মর্যাদায় আসীন সেখানে আমরা নিষ্পেষিত, নির্যাতিত, চির বঞ্চিত ও উপেক্ষিত। আপনাদের কি একবারও মনে হয়না যে আপনি শিক্ষক হয়েও পিয়নের চেয়ে মর্যাদাহীন। আমরা শিক্ষক তাই আমাদের ব্যক্তিত্বটা অন্য দশজনের চেয়ে বেশি থাকার কথা। 
 
আমাদের প্রতি শিক্ষার্থী, অভিভাবক, কৃষক, শ্রমিক সহ সরকার ও এর কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ যথেষ্ঠ শ্রদ্ধাশীল। তারা ভাবলেও আমাদের ভাবনা স্থির নয়। জাতীয়করণ মায়ের হাতের সেমাই নয় যে আপনাকে বাড়িতে এনে বাটি দিয়ে পরিবেশন করবে। 
 
শ্রদ্ধেয় শিক্ষকগণ এখনও সময় আছে অহমিকা ত্যাগ করে জাতীয়করণের দাবিতে এক পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হউন। বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ( নজরুল) আয়োজিত ২৮ ফেব্রুয়ারীর কুমিল্লা জেলা সম্মেলন ও ৯ মার্চ আয়োজিত জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে উপস্থিত হয়ে প্রত্যেক সংগঠন জাতীয়করণের জন্য আপনাদের আন্তরিকতা প্রমাণ করুন। এরপর আসুন সকল সংগঠন মিলে একটি বৃহত্তম মোর্চা গঠন করে জাতীয়করণের দাবিতে বৃহৎ আন্দোলন গড়ে তুলি। জাতীয়করণ কারও ব্যক্তিগত সম্পদ নয়। জাতীয়করণ সোয়া পাঁচ লক্ষ বেসরকারি শিক্ষকদের প্রাণের দাবি। 
 
সবাইকে বিনীতভাবে আহবান জানাই বিভাজন নয় ঐক্যবদ্ধ হউন। 
 
প্রদীপ কুমার দেবনাথ, 
শিক্ষক, সাংবাদিক ও কলামিস্ট।                                                       
সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর