শনিবার ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৭:০০ এএম


ছাত্রদের কবরের পথ দেখাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়

এডুকেশন বাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:০৯, ১২ নভেম্বর ২০১৯  

অতিরিক্ত মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পেতে অনেক পন্থা অবলম্বন করা হয়। কেউ কেউ বেড়াতে যায়, কেউ কেউ যোগ-ব্যায়াম, আবার অনেকেই কেউ কেউ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। তবে নেদারল্যান্ডসের র‍্যাডবউড বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের অতিরিক্ত মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পেতে কবরের পথ দেখাচ্ছে।

অভিনব এই পরামর্শে শিক্ষার্থীরা কবরে যাওয়া শুরু করেছে। শুধু তাই নয়, কবরে যাওয়ার জন্য রয়েছে শিক্ষার্থীদের লম্বা লাইন।

নেদারল্যান্ডসের নিজমেগেন শহরের এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মানসিক চাপ কমাতে কবরে শুয়ে থাকতে দেখা গেছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিররে এমন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, পরীক্ষা সামনে আসলে শিক্ষার্থীরা প্রচণ্ড রকম মানসিক চাপে থাকেন। তাদের এ চাপ থেকে মুক্তি দেবে এই ‘পিউরিফিকেশন পদ্ধতি’। এটা পরীক্ষার চাপসহ সব ধরনের মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করবে। এজন্য অভিনব এই ‘গ্রেভ থিওরি’বেছে নিয়েছে র‍্যাডবউড বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

মানসিক চাপ কমানোর এই পদ্ধতিতে কবরের মতো বড় গর্তে শুয়ে থাকতে হয় শিক্ষার্থীদের। একজন শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন ৩০ মিনিট থেকে সর্বোচ্চ তিন ঘণ্টা পর্যন্ত সময় কাটাতে পারবেন এই কবরে। তবে শর্ত হলো- শুধু একটি মাদুর আর একটি বালিশ নিয়ে সেখানে যাওয়া যাবে। নেয়া যাবে না মোবাইল ফোন কিংবা অন্য কোনো ব্যক্তিগত জিনিসপত্র।

এডুকেশন/কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর