বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ১৬:৩১ পিএম


‘খাদ্য নিরাপত্তায় বাকৃবি গ্র্যাজুয়েটদের অবদান সবচেয়ে বেশি’

বাকৃবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১:৩১, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯  

 

বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দেশে মঙ্গা নামক শব্দটির অব্যাহতি পেয়ে আজকে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ খাদ্য চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও খাদ্য রপ্তানিতে সক্ষমতা অর্জন করেছে। যা সম্ভব হয়েছে বাকৃবির গ্রাজুয়েটদের গবেষণা এবং উন্নত মানের ফসলের জাত উৎপাদনের মাধ্যমে। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে যে দেশে ৭ কোটি মানুষ অনাহারে থাকত, সেই দেশেই এখন ১৭ কোটি মানুষের মুখে সরকার তিন বেলা আহার তুলে দিতে পারছে বাকৃবি গ্রাজুয়েটদের অবদানের কারণেই।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) বিকাল ৪টায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) আয়োজিত জাতীয় খাদ্য নিরাপত্তা অর্জনে বাকৃবির ভূমিকা শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ফরহাদ হোসাইন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সম্মেলন কক্ষে ওই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

এসময় তিনি আরো বলেন, কৃষিবিদদের অবদানে বাংলাদেশ খাদ্য পুষ্টিতে এগিয়ে যাচ্ছে এবং দেশের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হচ্ছে। আমাদের একটি শক্তি যে, আমরা দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে খাদ্যে উৎপাদনে এগিয়ে যাচ্ছি। বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে বাঁচার চিন্তা করছে। কৃষিতে আরো উন্নতির জন্য প্রয়োজন কৃষি যান্ত্রিকীকরণ। চালের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে শাক-সবজির প্রতি আমদের চাহিদা বাড়াতে হবে। এতে পুষ্টির চাহিদা পূরণ হবে এবং শরীর সুস্থ থাকবে । সমুদ্রের সম্পদ কাজে লাগিয়ে বস্তু ইকোনোমি প্রতিষ্ঠা করতে হবে। দেশে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে খাদ্য প্রকৌশলীদের এখন ফুড প্রসেসিং এর উপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে ।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ফরহাদ হোসাইনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন।

আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ফরহাদ হোসাইন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান। আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাকৃবি রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আবু হাদী নূর আলী খান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাকৃবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। অতিথিদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বাকৃবি শিক্ষক সমিতির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এ.কে.এম. জাকির হোসেন। এছাড়াও আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এডুকেশন বাংলা/ আর/এমআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর