সোমবার ০৬ এপ্রিল, ২০২০ ১৪:২৭ পিএম


একই শ্রেণিকক্ষের ১৯ শিক্ষার্থী হোম কোয়ারেন্টাইনে

প্রকাশিত: ০৯:২৩, ১৮ মার্চ ২০২০  

আইসোলেশনে থাকা ইতালি প্রবাসীর সন্তানের সঙ্গে লেখাপড়া করা একই শ্রেণিকক্ষের ১৯ শিক্ষার্থীকে মাদারীপুরের শিবচরে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীরাসহ শিবচরেই হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৭০ জন।

জেলায় এ ব্যবস্থার মধ্যে আছে মোট ১২৯ জন। এ ছাড়া জেলায় ১৩৮ জনকে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্ত করা হয়েছে। ঢাকায় আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে ইতালি প্রবাসীর শাশুড়িকে। এর আগে ওই ইতালি প্রবাসী, স্ত্রী ও সন্তানকে ঢাকার আইসোলেশনে পাঠানো হয়।

কুমিল্লায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত দেশ থেকে আসা ১৭৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় এই ব্যবস্থায় থাকা এই প্রবাসীরা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের নিয়মনীতি মানছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা রীতিমতো ঘরের বাইরে ঘোরাফেরা করছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। পরিবার ও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে মিশছেন। এতে অন্যরা ঝুঁকির মুখে পড়ছেন।

নড়াইলে বিদেশফেরত ব্যক্তিদের সংখ্যা বাড়ছে। তাদের বড় অংশ হোম কোয়ারেন্টাইনে না থেকে যত্রতত্র ঘুরে বেড়াচ্ছে। স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, একার পক্ষে সামাল দেওয়া সম্ভব নয়। দেশের আরও অনেক স্থানে এমন চিত্র বলে জানা গেছে।

এ ছাড়া বিভিন্ন জেলায় অনেকেই বিশেষ ব্যবস্থায় রয়েছেন। এর মধ্যে ঝালকাঠিতে ছয়, লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে এক, সাতক্ষীরায় ১৩, সিরাজগঞ্জে নয়, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডে দুই, হবিগঞ্জে দুই, নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই, বরিশালে ৯০, পঞ্চগড়ের বোদায় বিদেশফেরত নারীকে হাসপাতালে দেয় এলাকাবাসী, সিলেটে ২৯০, বগুড়ার আদমদীঘিতে ১৫, চাঁদপুরে ১৬৭, মৌলভীবাজারে ১১৩ জন এবং বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এক যুবককে।

ঝালকাঠির রাজাপুরে ভাইরাস মোকাবিলায় ঢিমেতালে প্রস্তুতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। পর্যাপ্ত উপকরণও নেই। মানিকগঞ্জের ঘিওরে কোয়ারেন্টাইন না মানায় অস্ট্রেলিয়াফেরত ব্যক্তি ১৫ হাজার ও সাটুরিয়ায় ইরাকফেরত যুবককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বগুড়ায় ইতালিফেরত যুবককে নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলেও স্বাস্থ্যকর্মীরা জানান, তিনি সুস্থ আছেন। সিরাজগঞ্জে কমিটি থাকলেও তদারকি নেই বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাতক্ষীরার ভোমরা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি বিশ্বজিত সরকার জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে চেকপোস্ট দিয়ে পাসপোর্ট যাত্রীদের আসা-যাওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে প্রচার অব্যাহত আছে। মঙ্গলবার চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা প্রচারপত্র বিলি করেন। পাবনায় প্রচার চালায় যুবলীগ। গাইবান্ধায় জেলা রোভার স্কাউটের উদ্যোগে লিফলেট বিতরণ করা হয়। মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে ইউনাইটেড হসপিটালের উদ্যোগে আইসোলেশন ইউনিট উদ্বোধন করা হয়েছে।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর