সোমবার ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৩:২৪ এএম


উচ্চস্বরে কেবল একজন বুয়েট ছাত্রীর শব্দ শুনি, কে এই ছাত্রী!

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:৫০, ৯ অক্টোবর ২০১৯  

বুয়েটের আবরার ইস্যুতে গতকাল থেকে যতগুলো রিপোর্ট দেখেছি,সেখানে উচ্চস্বরে কেবল একজন বুয়েট ছাত্রীর শব্দ শুনি।

গতকাল পুলিশের চোখে চোখ রেখে বলতেসে,
-আঙ্গুল তুলে কেন কথা বলতেছেন আমাদের সাথে?
বুয়েটের শেরে বাংলা হলে পুলিশ প্রবেশের পর সকল ছাত্র-ছাত্রী সম্মিলিত ভাবে পুলিশকে হল থেকে বের করে দেয়।সেখানে এই মেয়ের সাহসী উচ্চারণ
-কার অনুমতি নিয়ে আপনারা আমাদের হলে প্রবেশ করেছেন?

আজকে (গতকাল) ভিসিকে বলতেসে,
-আপনার ছাত্রকে মেরে ফেললো আপনি ঘরে বসে আছেন। আপনি কেমন ভিসি ক্যাম্পাসে আপনার ছাত্রের জানাজা হচ্ছে কিন্তু আপনি উপস্থিত থাকেন না?

আজকে (গতকাল) বুয়েটের ছাত্র কল্যান পরিচালককে প্রশ্ন করতেছে
-স্যার, আপনার ছাত্রদের কে ধরে এনে পিটিয়ে মেরে ফেলা হচ্ছে,আপনি কিসের ছাত্র কল্যান দেখেন?

কি অদ্ভুদ একটা শক্তি এই বাচ্চা মেয়েটার কন্ঠে।
ও ভুয়া উচ্চারণ শুরু করে, বুয়েটের সমগ্র ক্যাম্পাস ভুয়া ধ্বনিতে প্রকম্পিত হতে থাকে।

মেয়েটার নাম জানি না। এসব অদম্য সাহসী মানুষের নাম জানারও দরকার হয় না। কিছু মানুষের "ভোকাল" তাঁর নতুন পরিচয় হয়ে উঠে।
সময় এসব আড়ালে থাকা চেহারাকে নিজের প্রয়োজনে সামনে নিয়ে আসে।
স্পার্ক রূপে,জ্বলন্ত আগ্নেয়গিরি রূপে অথবা হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালার রূপে।

বোন তোর মত যদি আজ আমরা সবাই প্রতিবাদের বজ্রকণ্ঠে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতাম তাহলে হয়ত আর আমাদের আবরারের মত অসহায় ছেলেকে নির্মম হত্যার পুনরাবৃত্তি দেখতে হতো না।আজ থেকেও যদি আমরা তোর মত হতে পারি অন্যায়কে অন্যায় বলে তার প্রতিবাদ করতে পারি,তবে কুলাঙ্গাররা হয়ত আর কোনদিনই কারোর ক্ষতি করার সাহস পাবে না।

জানিনা তার জীবন আবার হুমকির মুখে পড়বে নাকি?

হেলাল হোসাইন-এর (Helal Hossain)  টাইম লাইন থেকে নেয়া

এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর