বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ১৯:১৮ পিএম


ইমরানের ফোন, মাহাথিরের পর এরদোয়ানও কাশ্মীরিদের পাশে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:৪১, ৬ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ১৬:৪১, ৬ আগস্ট ২০১৯

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর উদ্ভূত পরিস্থিতির বিষয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান পাকিস্তানের অবস্থানের প্রতি দৃঢ় সমর্থন জানিয়েছেন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে গতকাল সোমবার টেলিফোনে কথা বলে এরদোয়ান তার দেশ কাশ্মীরি জনগণের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে বলে ঘোষণা দেন। খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউন পাকিস্তানের।

জানা গেছে, কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ভারত কেড়ে নেয়ার পর মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলছেন ইমরান। এরই অংশ হিসেবে কাশ্মীরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে এরদোগানকে ইমরান খান কাশ্মীর বিষয়ে ভারতের একতরফা সিদ্ধান্তের ফলে এ অঞ্চলে নিরাপত্তা ও শান্তি বিঘ্নিত হবে বলে জানান। যা শুনে উদ্বেগ প্রকাশ করেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। এ ইস্যুতে তুরস্কের দৃঢ় সমর্থন পাকিস্তানের পাশে থাকবে বলে জানায় পাকিস্তান পাকিস্তানি গণমাধ্যম।

এর আগে, ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীর ভেঙে দুই টুকরো করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। সোমবার ভারতের রাজ্যসভার অধিবেশনে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল সংক্রান্ত প্রস্তাব পাস হয়ে যাওয়ার পর মাহাথির এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

এদিকে, কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করেছে ভারত সরকার। সেই সঙ্গে স্বায়ত্তশাসিত এই রাজ্যটিকে ভেঙে কেন্দ্রীয় সরকার শাসিত জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ নামের দুই রাজ্য তৈরি করা হয়েছে। অবশ্য রাজ্যের মর্যাদাও হারাতে পারে কাশ্মীর। এই ৩৭০ অনুচ্ছেদের ওপর ভিত্তি করেই ভারতের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল কাশ্মীর। এতে জম্মু ও কাশ্মীরকে অন্য যে কোনো ভারতীয় রাজ্যের চেয়ে বেশি স্বায়ত্তশাসন ভোগ করার অধিকার দেওয়া হয়েছিল। তাই সরকারি এই পদক্ষেপের পর সেখানে তীব্র প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কা হচ্ছে। গতকাল এর সূচনা দেখা গেছে ভারতের আইনসভা লোকসভায়। হয়েছে তীব্র বাকবিতণ্ডা ও হট্টগোল। অবশ্য ক্ষমতাসীন বিজেপি দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়ন করে মিষ্টি বিতরণ করেছে কর্মীদের মাঝে।

এডুকেশন বাংলা/একে

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর