বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:২৪ পিএম


আবার কবে হবে এমপিওভুক্তি?

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:২৯, ২৪ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ২১:১৩, ২৪ অক্টোবর ২০১৯

দীর্ঘ নয় বছর পর বুধবার (২৩ অক্টোবর) বহু আকাঙ্ক্ষিত এমপিভুক্তির ২৭৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ হলো। যাদের এমপিও হয়েছে তাদের আনন্দের শেষ নেই। আর যাদের এমপিও হয়নি তাদের কী অবস্থা ভুক্তভোগী ছাড়া আর কেউ বলতে পারবে না। এডুকেশন বাংলা`র কাছে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেতে গিয়ে আসাদুজ্জমান নামের একজন কলেজ শিক্ষক জানান, `এতদিন আশায় ছিলাম এমপিও হবে। চাকরির শেষ সময়টায় ভালোভাবে সংসারটাকে চালাতে পারবো। তা আর হলো না। সব যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও এমপিওভুক্ত হলোনা আমার কলেজ। আবার কখন হবে তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই। সামাজিকভাবে এমনকি পরিবার আত্মীয় স্বজনদের কাছেও বেতন ছাড়া শিক্ষক হিসাবে আমরা অবমূল্যায়িত। নির্বাচনের পূর্বে অনেক এমপি-মন্ত্রীই আশ্বাস দিয়েছিলেন নির্বাচিত হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করে দিবেন কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হলো না।

অবশ্য আগেই বলা হয়েছিলো যোগ্যতা থাকা সত্বেও সব প্রতিষ্ঠান একসাথে এমপিও করা যাবে না। আবার কিছু প্রতিষ্ঠান এমপিও করতে হলে বর্তমান নীতিমালার পরিবর্তন ও সংশোধন করতে হবে।

স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলরত শিক্ষক প্রতিনিধিদের সাথে রোববার এক বৈঠকে এমপিও এবং বর্তমান নীতিমালার বিষয়ে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি। তিনি বলেছিলেন আমি নিজে নীতিমালাটা পড়েছি। আমি মনে করি এবং অকপটে বলতে পারি নীতিমালাটি সংশোধন এবং পরিবর্তন আনা প্রয়োজন। বর্তমান নীতিমালা করার ক্ষেত্রে আরো ভালো ভাবনা থাকতে পারতো।

অনশনরত শিক্ষকনেতাদের সাথে অন্য এক বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, বর্তমান নীতিমালা অনুযায়ি যে এমপিওর তালিকা করা হয়েছে তার আর পরিবর্তনের সুযোগ নেই। তবে পরবর্তিতে নীতিমালা পরিবর্তন করার সময় কমিটিতে আপনাদের প্রতিনিধি রাখা হবে এবং নতুন নীতিমালা অনুযায়ি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করা হবে।

দীপু মনি বলেন, যারা এবার যোগ্য বিবেচিত হতে পারেননি, তারা আগামী বছর সংশোধিত নীতিমালার ভিত্তিতে এমপিও দেয়া হবে। কেউ এবছর পাবেন। কেউ আগামী বছর পাবেন। কেউ পরের বছর এমপিও পাবেন। এখন থেকে প্রত্যেক বছর এমপিও দেয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন শিক্ষামন্ত্রী।

বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়, একটি এমপিওভুক্তির সাথে অনেক কিছু জড়িত আর বর্তমান নীতিমালা পরিবর্তন সংশোধন করতে গেলেতো আরো দীর্ঘ প্রক্রিয়ার বিষয়। এর সাথে সরকারের সিদ্ধান্ত, বাজেটের বিষয়তো আছেই। এই অর্থ বছরে আর হওয়ার সম্ভাবনা থাকার সম্ভাবনা খুবই কম।

এডুকেশন বাংলা/এজেড

 

 

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর