মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০:৩১ এএম


অবসর-কল্যাণের চাঁদা বাড়ানোর প্রতিবাদে আন্দোলনের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:০৭, ২১ জানুয়ারি ২০১৯  

বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ডের চাঁদার হার ১০ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। ১০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রতিবাদে আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস)।

সোমবার (২১ জানুয়ারি) সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম রনি স্বাক্ষরিত এক বিবৃতি এডুকেশন বাংলা মেইলে পাঠানো হয়। সেখানে এ হুমকি দেয়া হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রায় ৫ লাখ এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের বর্তমানে ৬% টাকা প্রতিমাসে তাদের বেতন থেকে অবসর ও কল্যাণ ট্রাস্টে কেটে রাখা হয়। আবারও ৪% অতিরিক্ত তথা ১০% কাটার গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এতে ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারী চরম উদ্বেগ উৎকন্ঠায় দিন যাপন করছে। ইতোমধ্যে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সচিব মাহাবুবুর রহমান গত ১৪/০১/২০১৯ তারিখে এক আদেশে ১০% কর্তনের কথা বলেছেন। উল্লেখ যে, গত ০৩/১১/২০১৮ তারিখে শিক্ষা সচিব অতিরিক্ত টাকা কর্তনের কথা বললে সারাদেশে সোস্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় শুরু হলে শিক্ষকদের অসন্তোষে তা থেকে সরে আসা হয়।

আজ ২১ তারিখ সোমবার বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি এক বিবৃতিতে বলেন- সামান্য বেতনভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের অতিরিক্ত টাকা কর্তন করা হলে তা হবে আত্মঘাতী। এর সাথে জড়িতরা বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করছে। আওয়ামী লীগের নমিনেশন না পেয়ে একজন নেতা শিক্ষকদের আর্থিক ক্ষতি করে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। অবসর ও কল্যাণ ট্রাস্টের কারণে অনেক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অবসরের টাকা না পেয়ে চরম মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

বিবৃতিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম রনি আরো বলেন- শিক্ষকদের নিকট থেকে অতিরিক্ত টাকা কর্তন না করে অবসর ও কল্যাণ ট্রাস্টে সরকারী বাজেট বৃদ্ধি করার জন্য মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন। বিবৃতিতে আরো স্বাক্ষর করেন- বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির মহাসচিব মোঃ আবুল হোসেন মিলন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ মোহসিন উদ্দিন, সহ-সভাপতি মোঃ এনামুল হক, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির যুগ্ম-মহাসচিব অধ্যক্ষ মোস্তফা জামান রানা, অতিরিক্ত মহাসচিব মোঃ কামরুল খান, সাংগঠনিক সচিব মোঃ মেজবাহুল ইসলাম, অর্থ সচিব আবুল বাশার বাদশাহ, দপ্তর সচিব মোঃ জসিম উদ্দিন, মোঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ আনোয়ার হোসেন মিঞা, লিয়াঁজো ফোরামের উপদেষ্টা মোঃ ফিরোজ মিয়া, বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও লিয়াঁজো ফোরামের যুগ্ম-আহ্বায়ক মোঃ মুঞ্জুরুল আমিন শেখর প্রমুখ।

এডুকেশন বাংলা/একে

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর