রবিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২১:৪১ পিএম


অনশনে পার্শ্ব শিক্ষিকার মৃত্যু ঘিরে বিতর্ক

এডুকেশন বাংলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৮:০২, ২২ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২৩:১৮, ২২ নভেম্বর ২০১৯

পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহনপুরের দক্ষিণ বোড়াই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পার্শ্ব শিক্ষিকা রেবতী রাউল (৪৮)-এর মৃত্যু ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে বিতর্ক।

জানা গেছে, বিকাশ ভবনের উল্টো দিকে পার্শ্ব শিক্ষকরা অনশন করছিল। অনশন সপ্তম দিনে পার্শ্ব শিক্ষিকার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়।

নিহত রেবতী রাউলের (৪৮) গ্রামের বাড়ি বোড়াইতেই।

তিনি কলকাতার অনশনে গিয়ে অসুস্থ হয়ে মারা গিয়েছেন বলে অভিযোগ কংগ্রেসের। পার্শ্ব শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের যুগ্ম আহ্বায়ক ভগীরথ ঘোষেরও দাবি, রেবতী রাউল পাঁচ দিন বিক্ষোভ-অবস্থানে ছিলেন। উনি অনশন করেননি। তবে বিক্ষোভরত অবস্থাতেই অসুস্থ হয়ে গত ১৮ নভেম্বর বাড়ি ফিরে যান। সে দিনই হাসপাতালে মারা যান।

তবে পরিবার জানিয়েছে, বাইক থেকে পড়ে মাথায় চোট পেয়েছিলেন রেবতী।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, অধিকার আদায়ের দাবিতে আন্দোলন করতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে প্রাণ হারাতে হল পার্শ্ব শিক্ষিকা রেবতী রাউলকে। আমাদের দাবি, রাজ্য সরকার অবিলম্বে আন্দোলনরত পার্শ্ব শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসুক এবং মৃত শিক্ষিকার পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিক।

এ ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় অবশ্য বলেন, যে কোনো মৃত্যুই দুঃখের। উনি এখানে না জেলায় মারা গিয়েছেন, তা জানি না। তবে আগেও বলেছি, একসঙ্গে তাদের সব দাবি মানতে পারব না।

এদিকে সল্টলেকে চলতে থাকা পার্শ্বশিক্ষকদের অনশন ইস্যু নিয়ে শুক্রবার (২২ নভেম্বর) উত্তপ্ত হল সংসদ। রেবতী রাউতের মৃত্যু এবং অনশনরতদের বেশ কয়েক জনের অসুস্থ হয়ে পড়ার কথা লোকসভায় তুললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় এবং হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। তীব্র বিরোধিতা শুরু হল তৃণমূলের তরফ থেকে। দু’পক্ষের বাগবিতণ্ডায় তুমুল হট্টগোল শুরু হয়ে গেল লোকসভায়।

এডুকেশন/কেআর

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর