সোমবার ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫৯ পিএম


অনশনের ২৪ ঘণ্টাতেই সাফল্য চাকরিপ্রার্থীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৯:৪৬, ২ আগস্ট ২০১৯  

নিজেদের দাবি আদায় করার পথে একধাপ এগিয়ে গেলেন অনশনরত চাকরিপ্রার্থীরা৷ বুধবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁদের আলোচনার জন্য ডেকে পাঠিয়েছেন কালীঘাটের বাড়িতে৷ চারজন প্রতিনিধির সঙ্গে তাঁদের সমস্যা নিয়ে কথা বলবেন তিনি৷

জেলা পরিষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, নদিয়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি  রিক্তা কুণ্ডু, কর্মাধ্যক্ষ চঞ্চল দেবনাথ মঙ্গলবার আন্দোলনকারীদের জেলা পরিষদে ডেকে একথা জানিয়েছেন৷ সঙ্গে ছিলেন অতিরিক্ত জেলাশাসক দেবপ্রিয় বিশ্বাস৷ যে চারজন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাবেন, তাঁদের নাম ও ফোন নম্বর নেওয়া হয়েছে জেলা পরিষদের তরফে৷ আর এদিন সন্ধেবেলা এই খবর পেয়ে প্রবল উচ্ছ্বাস দেখা যায় আন্দোলনকারী মহলে। মুখ্যমন্ত্রীর ডাক পাওয়াকে তাঁরা সকলেই আন্দোলনের প্রথম সাফল্য বলে মনে করছেন। এখন থেকেই তাঁরা আশাবাদী, এবার নিয়োগপত্র পাবেনই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের  কাছে তাদের আন্দোলনের খবর পৌঁছে দেওয়ার জন্য বেশ কয়েকদিন ধরেই চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। গত ২৩ জুলাই থেকে  নদিয়া জেলায় গ্রাম পঞ্চায়েত কর্মী পদের জন্য চূড়ান্ত তালিকায় নাম উঠে যাওয়া চাকরিপ্রার্থীরা অবিলম্বে নিয়োগপত্র দেওয়ার দাবিতে  জেলা পরিষদের সামনে ধরনায় বসে ছিলেন। টানা ছ’দিন ধরে ধরনার পর কর্তৃপক্ষের কোনও সাড়া না মেলায় সোমবার থেকে তাঁরা রিলে অনশন শুরু করেন। তাতে অসুস্থও হয়ে পড়েছিলেন একজন আন্দোলনকারী।

তবে অনশন শুরু করার চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই জট কাটাতে তাঁদের আলোচনার টেবিলে ডেকেছে মুখ্যমন্ত্রী৷ আন্দোলনকারীদের পক্ষে সুবীর হাঁটুই  জানিয়েছেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরেই চাইছিলাম, আমাদের দাবির কথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবধি পৌঁছে দিতে। তার কানে পৌঁছলে নিশ্চয় আমাদের সমস্যার সমাধান হবে, এই বিশ্বাস আছে৷ শেষপর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের কথা শোনার জন্য চারজনকে ডেকেছেন। আমরা ভীষণ খুশি, আমরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আমাদের দাবির কথা তুলে ধরব। আমাদের মধ্যে আট জন শহিদ পরিবারের সদস্য রয়েছেন।  চাকরির নিয়োগপত্র না পাওয়ায় আমরা কষ্টে আছি। তবে এবার আমরা আশা রাখছি, নিশ্চয়ই মুখ্যমন্ত্রী আমাদের বিষয়টি বিবেচনা করবেন। বুঝবেন, আমাদের  মনের কথা। সেই আশা নিয়েই আমরা চারজন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছি।’ বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করার পরই অনশন তুলে নেওয়ার ব্যাপারে তাঁরা সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারীদের মুখপাত্র সুবীর হাঁটুই৷

এর আগে টানা ১৪ দিন অনশন করে  রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা নিজেদের দাবি আদায় করতে সক্ষম হয়েছেন৷ দাবিমতো তাঁদের বেতন বৃদ্ধির বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে শিক্ষা দপ্তর৷ সেই পথে হেঁটেই সাফল্য পাবেন বলে মনে করছেন পঞ্চায়েত স্তরের চাকরিপ্রার্থীরা৷



এডুকেশন বাংলা/এজেড

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর