বৃহস্পতিবার ০৪ জুন, ২০২০ ৬:২৭ এএম


অনলাইনের পাশাপাশি এসএমএসেও এসএসসির ফল প্রকাশ

মুসতাক আহমদ

প্রকাশিত: ০৯:২২, ১৩ মে ২০২০  

আগামী জুনে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। এর আগে প্রকাশ হবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল। ৩১ মে’র মধ্যে ফল প্রকাশের লক্ষ্য নিয়ে শিক্ষা বোর্ডগুলোতে কাজ চলছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রথমবারের মতো অনলাইনের পাশাপাশি এসএমএসেও ফল প্রকাশ করা হবে। অর্থাৎ প্রত্যেক শিক্ষার্থী ঘরে বসে নিজের মোবাইল ফোনেই পেয়ে যাবে ফল। এ জন্য শিক্ষার্থীদের ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করে রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং নাম নিবন্ধন করে রাখতে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, চলতি মাসের মধ্যে এসএসসির ফল প্রকাশের লক্ষ্য নিয়ে কাজ চলছে। ঈদের আগে বা পরে যে কোনো সময় ফল প্রকাশ হতে পারে। আমরা এসএমএস করে শিক্ষার্থীর ঘরে ফল পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তিনি বলেন, ফল প্রকাশের এক সপ্তাহ পর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরুর রীতি আছে। আমরা সেই প্রস্তুতিও নিচ্ছি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, ২৭ মে’র পর যে কোনো দিন ফল প্রকাশের লক্ষ্য নিয়ে বোর্ডগুলোতে কাজ চলছে। আর যদি নম্বর পরীক্ষকদের কাছ থেকে চলে আসে এবং সব বোর্ডের কাজ শেষ হয় সে ক্ষেত্রে প্রয়োজনে ঈদের আগেই ফল প্রকাশ করা হবে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের প্রধান সিস্টেম এনালিস্ট প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর যুগান্তরকে বলেন, বোর্ডের পরীক্ষা, আইসিটি ও প্রশাসন শাখার ১১০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী দিনরাত কাজ করছেন। এর মধ্যে আইসিটি শাখায় কর্মরত ২৮ জনের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে বোর্ডের ক্যান্টিনে। যারা বোর্ডের ভেতরে ঢুকেছেন তারা কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত আর বের হবেন না। একই কথা জানিয়েছেন মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কামাল উদ্দিন। সরকার প্রায় দশ বছর ধরে পেপারলেস ফল প্রকাশ করে আসছে। অনলাইনে ও ইমেইলে ফল পাঠানো হয় বোর্ড থেকে। এতে এবার যুক্ত হচ্ছে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের উপায়। সে অনুযায়ী প্রথমবারের মতো এসএমএসে ফল প্রকাশ করা হবে। এ জন্য শিক্ষার্থীদের ১৬২২২ নম্বরে নিজের রোল নম্বর, নামসহ কে কোন বোর্ডের সেই তথ্য এসএমএস করে রাখতে বলা হবে। এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি দু’এক দিনের মধ্যে প্রকাশ করা হবে। এদিকে এবার ফল পুনঃনিরীক্ষার সুযোগ থাকছে। ফল প্রকাশের পর ৭ দিনের মধ্যে আবেদন করতে হবে। আর এই আবেদনের ফল অন্যান্য বছর ৩০ দিনের মধ্যে প্রকাশের রেওয়াজ ছিল। তবে এবার ২৫ দিনের মধ্যে প্রকাশ করা হবে।

একাদশে ভর্তি : এদিকে ফলাফল প্রকাশের পর ৬ জুন থেকে অনলাইনে একাদশে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। ভর্তি কার্যক্রম শেষে আগামী ১৬ আগস্ট থেকে ক্লাস শুরুর চিন্তা আছে। তবে পরিস্থিতির উন্নতি না হলে সরকার ঘোষিত পরবর্তী সময়ে ক্লাস শুরু করা হবে। সূত্র আরও জানায়, আপাতত আগামী ৬ জুন থেকে ভর্তি শুরুর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত আছে। ওইদিন থেকে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির ভর্তিচ্ছুরা অনলাইনে আবেদন করবেন। মোট তিন ধাপে আবেদন করতে পারবেন। ফল প্রকাশ করা হবে তিন ধাপে। এ ছাড়া আগের মতোই আবেদন যাচাই-বাছাই, আপত্তি ও নিষ্পত্তি ইত্যাদি কার্যক্রম থাকবে। এ প্রসঙ্গে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুন অর রশিদ বলেন, চলতি মাসে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর ৬ জুন থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত অনলাইনে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম শেষ করা হবে। এ বছরও শুধু অনলাইনে করা হবে।

সব খবর
এই বিভাগের আরো খবর